ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:২৬ ঢাকা, সোমবার  ১৮ই জুন ২০১৮ ইং

মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন

“বাংলাদেশের উন্নয়নে এডিবি বৃহৎ অংশীদার”

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন (এলজিআরডি) ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এশীয় উন্নয়ন ব্যাক (এডিবি) বৃহৎ অংশীদার।

স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীনস্ত এলজিইডিতে ১৫ টির অধিক প্রকল্প এডিবি’র সহায়তায় বাস্তবায়িত হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এসব প্রকল্পে এডিবি’র অর্থ সহায়তা রয়েছে প্রায় ১৫ হাজার ৫০০ কোটি টাকা।

বাংলাদেশে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) নবনিযুক্ত আবাসিক প্রতিনিধি মনমোহন প্রকাশ আজ এলজিআরডি মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সাথে সচিবালয়স্থ অফিস কক্ষে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের সহযোগিতায় চলমান বিভিন্ন প্রকল্পের বিষয়েও আলোচনা হয়।

এলজিআরডি মন্ত্রী নবনিযুক্ত কান্ট্রি ডিরেক্টরকে বর্তমান সরকারের আমলে উন্নয়ন কর্মকান্ডের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে অবগত করেন। তিনি বলেন, যোগাযোগ, অবকাঠামো, নদী সংস্কার, পরিবেশ, কৃষি, পানি সরবরাহের অগ্রগতিতে বাংলাদেশ বিশে^ রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

এডিবি’র কান্ট্রি ডিরেক্টর জানান, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক বাংলাদেশের উন্নয়নে দ্বিতীয় বৃহৎ অংশীদার হিসেবে গত পাঁচ বছরে প্রায় ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ সহায়তা দিয়েছে। ভবিষ্যতে এ সহায়তা ৮ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছাবে বলে তিনি উল্লেখ করেন ।

মনমোহন প্রকাশ বলেন, বর্তমানে মাত্র ৬০ জন লোকের হাতে বিশে^র অর্ধেকেরও বেশী সম্পদের মালিকানা রয়েছে। ফলে সম্পদের বন্টনে বিশাল অসামঞ্জস্যতা বিরাজ করছে।

তিনি জানান,এডিবি এ বৈষম্য কমিয়ে আনতে কাজ করছে। এজন্য সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়নে এডিবি সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

মনমোহন প্রকাশ উন্নত ও আধুনিক নগরায়নে এবং যোগাযোগ ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা নিয়েও বাংলাদেশের সাথে কাজ করার আগ্রহ ব্যক্ত করেন।

স্থানীয় সরকার বিভাগের মহাপরিচালক এ এস এম মাহবুবুল আলম, এডিবি’র বহি:সম্পর্ক বিভাগের দল প্রধান গোবিন্দ বার, পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের দল প্রধান জহির উদ্দিন আহমদ ও মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।