ব্রেকিং নিউজ

রাত ৩:০১ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ঋণ চুক্তি সই অনুষ্ঠানে ইআরডির জ্যেষ্ঠ সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন ও জাইকার আবাসিক মিকিও হাতায়েদা

বাংলাদেশকে ৮৬৬০ কোটি টাকা ঋণ সহায়তা দিচ্ছে জাপান

বিদ্যুৎ, অবকাঠামো, স্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন খাতের ছয় প্রকল্পে বাংলাদেশকে সহজ শর্তে ৮ হাজার ৬৬০ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে জাপান।
জাপানি মুদ্রার হিসেবে বাংলাদেশের জন্য এটিই সবচেয়ে বড় জাপানি ঋণ বলে জানিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে।
রবিবার এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাপান সরকার ও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) মধ্যে এ বিষয়ে চুক্তি সই হয়।
বাংলাদেশের পক্ষে ইআরডির জ্যেষ্ঠ সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন এবং জাইকার পক্ষে আবাসিক মিকিও হাতায়েদা এ চুক্তিতে সই করেন।
এই ঋণের জন্য বার্ষিক সুদের হার হবে ০.০১ শতাংশ। ঋণ শোধ করতে হবে ৪০ বছরে। ঋণ চুক্তিতে সুদের রেয়াতকাল ধরা হয়েছে ১০ বছর; অর্থাৎ, এই সময়ে কিস্তি শোধে সুদ দিতে হবে না।
মেজবাহউদ্দিন বলেন,   ‘জাপানের এই সহায়তা আমাদের অর্থনীতিকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে। নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ থেকে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হতে আমাদের অনেক বিনিয়োগ দরকার।’
অনুষ্ঠানে উপস্থিত জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘জাপানি মুদ্রার হিসেবে এটাই বাংলাদেশকে দেওয়া জাপানের সবচেয়ে বড় ঋণ সহায়তা। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর টোকিও সফরের সময় জাপান সরকার পাঁচ বছরে ছয় বিলিয়ন ডলারের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, এটি তারই প্রতিফলন।
জাইকার সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের ৩৬তম ঋণ এই প্যাকেজের আওতায় প্রত্যক্ষ বৈদেশিক বিনিয়োগ বৃদ্ধিকরণ; ঢাকা-চট্টগ্রাম পাওয়ার গ্রিড শক্তিশালীকরণ; শহর অঞ্চলে ভবন নিরাপত্তা ব্যবস্থার উন্নয়ন; সেতু উন্নয়ন; মাতৃস্বাস্থ্য; মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্যের উন্নয়ন এবং উপজেলা পর্যায়ে সুশাসন প্রতিষ্ঠা শীর্ষক প্রকল্পের বাস্তবায়ন করা হবে।বিডি