ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:০২ ঢাকা, শনিবার  ২১শে এপ্রিল ২০১৮ ইং

ওবায়দুল কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

‘বহুরূপী মওদুদের পরামর্শে বিএনপি বাকি অর্ধেকও ডুববে’ – কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বহুরূপী মওদুদের পরামর্শ গ্রহণ করে বিএনপি আগেই অর্ধেক ডুবে গেছে, বাকি অর্ধেকটুকুও ডুবে যাবে।’

তিনি বলেন, সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর রায়কে কেন্দ্র করে বিএনপির ক্ষমতায় যাওয়ার রঙ্গিণ খোয়াব কর্পূরের মতো দূর হয়ে যাবে। বিদেশীরা যেমন বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়ে দেয়নি তেমনি আদালতও তাদের ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে না।

ওবায়দুল কাদের আজ দুপুরে রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ছাত্রলীগের যৌথ উদ্যোগে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ছাত্র সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

কাদের বলেন, আদালতের রায়ে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার এবং ব্যরিস্টার মওদুদ আহমেদের বাড়ী যখন হাতছাড়া হয় তখন আদালত নিরপেক্ষ থাকে না। কিন্তু যখন আদালতের কোন রায় বিএনপির পক্ষে যায় তখন তারা আদালত নিরপেক্ষ বলে লাফালাফি করে। বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করে মওদুদ আহমেদ এরশাদের মন্ত্রী হয়েছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বহুরূপী মওদুদের পরামর্শ গ্রহণ করে বিএনপি আগেই অর্ধেক ডুবে গেছে, বাকি অর্ধেকটুকুও ডুবে যাবে।’

ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান এমপি, ডা. দীপু মনি এমপি, এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ হোসেন, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহকারি একান্ত সচিব সাইফুজ্জামান শিখর, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন ও অর্জনকে যারা সহ্য করতে পারছে না তারা আদালতের একটি রায়কে কেন্দ্র করে এই সাফল্যকে নস্যাত করার জন্য ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে।

তিনি এ ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করার জন্য ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের শপথ নেওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করে এবং আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে দেশে বিদেশে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তারা নতুন নতুন ইস্যু তৈরি চেষ্টা করছে। ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করতে হবে। ষড়যন্ত্রের খুঁটি কোথায় তা আমরা জানি। দেশের জনগনের মধ্যে যাদের খুঁটি নেই, তারাই ষড়যন্ত্র করার জন্য খুঁটি খোজে। কারণ জনগনের মধ্যে তাদের (বিএনপি) খুঁটি থাকলে তারা ষড়যন্ত্র করত না।

এ সময় তিনি দলভারী করতে অনপ্রবেশকারীদের দলে না নিয়ে ছাত্রলীগকে সুনামের ধারায় ফিরিয়ে আনতেও নেতা-কর্মীদের প্রতি আহবান জানান।