ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৩৩ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

আবুল মাল আবদুল মুহিত।
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, ফাইল ফটো

‘বর্তমান সরকারের মেয়াদেই ৫ লাখ কোটি টাকার বাজেট’

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন, বর্তমানে প্রতি বছর গড়ে ১১ লাখ করদাতা তাদের আয়কর বিবরণী জমা দিচ্ছেন। তবে আশা করছি, চলতি অর্থবছর শেষেই তা ১৮ লাখ ছাড়িয়ে ২০ লাখ হবে। একইসাথে বর্তমান সরকারের মেয়াদেই ৫ লাখ কোটি টাকার বাজেট দেয়া হবে বলে তিনি জানান।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে নির্মাণাধীন জাতীয় রাজস্ব ভবনে ‘আয়কর সপ্তাহ উদ্বোধন ও সেরা করদাতা সম্মাননা প্রদান’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এবার প্রথমবারের মতো ২৪ থেকে ৩০ নভেম্বর আয়কর সপ্তাহ পালন করা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, এক সময় কর দিতে মানুষ ভয় পেত। তবে যে হারে করদাতা বাড়ছে, তাতে মনে হচ্ছে, মানুষের মধ্যে সে ভয় আর নেই। এখন করদাতাবান্ধব সংস্কৃতি তৈরি হয়েছে। তবে রাজস্ব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আরো করবান্ধব সেবার প্রতি মনোযোগী হতে হবে।

তিনি আরো বলেন, এখন ৩০ নভেম্বর জাতীয় আয়কর দিবস। তাই একজন করদাতাকে প্রতিবছর ওই সময়ের মধ্যেই কর দিতে হবে। তবে কেউ চাইলে সময় বৃদ্ধি করতে পারবেন। আয়কর সপ্তাহ করা হচ্ছে যাতে মানুষ ৩০ নভেম্বরের মধ্যে আয়কর দেন। দেশসেবা করতে মানুষ কর দেবেন, এটাই আমার প্রত্যাশা। আর কর দেয়া এক ধরনের বাহাদুরীর কাজও বটে। কারণ করের টাকা দিয়েই দেশের উন্নয়ন কাজ করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, সরকারের দায় হচ্ছে জনগণের আয়। আর সরকারের আয় হচ্ছে কর। তাই যারা কর দিচ্ছেন সেই সব করদাতাদেরকে আমি অভিনন্দন জানাই। যাদের করযোগ্য আয় আছে, অথচ কোন কারণে দিচ্ছেন না, তাদেরকে তিনি কর প্রদানের আহবান জানান।

তিনি বলেন, যারা কর দিচ্ছেন না; তারা যদি কর দিতে এগিয়ে আসেন, তাহলে আমরা আরো দ্রুত সমৃদ্ধশালী হবো। করের টাকা দিয়েই বিধবা ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতাসহ আমাদের জনগণকে বিভিন্ন ধরনের সামাজিক সেবা দেয়া হচ্ছে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে আমরা সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য বা এমডিজি অর্জনে অধিক সফল হয়েছি। এ সাফল্যের ধারাবাহিকতায় এখন আমরা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য বা এসডিজি অর্জনের পথে এগিয়ে যাচ্ছি। ২০১৮ সালের মধ্যেই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, আয়কর মেলার মতো অনেক সৃজনশীল উদ্যোগের ফলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড পূর্বের যেকোন সময়ের চেয়ে করদাতাদের বেশি আস্থা অর্জন করেছে। জনগণের করের টাকায় দেশে দৃশ্যমান উন্নয়ন হচ্ছে দেখে জনগণ আরো বেশি কর দিয়ে সরকারের উন্নয়নের অংশীজন হতে চায়।

সভাপতির বক্তব্যে এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান বলেন, এনবিআর করদাতাদের উন্নততর করসেবা প্রদানে প্রতিশ্রতিবদ্ধ। করদাতাদের সাথে সম্পর্ক আরো দৃঢ় করতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। রাজস্ব আহরণে এনবিআর কর্তৃক সৎ করদাতাদের প্রণোদনা দিতে ট্যাক্স কার্ড সংখ্যা বৃদ্ধি ও কার্ড প্রদানের ক্ষেত্রে বৈচিত্র আনা হয়েছে। ভবিষ্যতে আরো বৈচিত্র আনা হবে বলে তিনি জানান।

অনুষ্ঠানে ২০১৬-২০১৭ করবর্ষে সেরা করাদাতার স্বীকৃতি হিসেবে ১৪১ প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে ট্যাক্স কার্ড দেয়া হয়।