Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৪:১০ ঢাকা, শুক্রবার  ১৬ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

বর্তমান নাশকতা ও নৈরাজ্য কোন রাজনৈতিক সংকট নয়

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

খাদ্যমন্ত্রী এবং ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি বলেছেন, বিএনপি-জামায়াতের বর্তমান নাশকতা ও নৈরাজ্য কোন রাজনৈতিক সংকট নয়। তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া জামায়াতের নীতি ধারণ করেছেন। মহান শহীদ দিবসে শহীদ মিনারে না গিয়ে দলীয় কার্যালয়ে মিলাদ মাহফিল পালন করেছেন। রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন ও সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
বিএনপি-জামায়াতের হরতাল ও অবরোধের নামে নৈরাজ্যের প্রতিবাদে ‘ খালেদার রোষানলে পুড়ছে মানুষ-পুড়ছে দেশ’ শীর্ষক এ মানববন্ধন ও সমাবেশের আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট। জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানার সভাপতিত্বে সমাবেশে রাখেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট শামসুল হক টুকু এমপি, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক ও শিক্ষক নেতা সাহজাহান আলম সাজু, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক হাসিবুর রহমান মানিক, এম এ করিম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
কামরুল ইসলাম বলেন, মহান শহীদ দিবসে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন যখন শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্য শহীদ মিনারে যায় তখন জামায়াত তাদের দলীয় কার্যালয়ে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে। বিএনপি-জামায়াতের সাথে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী কোন রাজনৈতিক দলের সংলাপ হতে পারে না উল্লেখ করে কামরুল বলেন, যারা স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাস করে না এবং শান্তির পথে চলেনা তাদের সাথে কোন সংলাপ বা সমঝোতা হতে পারে না।
নির্বাচন বা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবী আদায়ের জন্য এ সংকট তৈরি হয়নি দাবি করে তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াতের বর্তমান নাশকতা ও নৈরাজ্য কোন রাজনৈতিক সংকট নয়। বর্তমান সংকট মানুষ্য সৃষ্ট কৃত্রিম দুর্যোগ। তিনি বলেন, দেশকে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিনিত করার জন্য এ সংকট পরিকল্পিতভাবে সৃষ্টি করা হয়েছে।
দেশের কতিপয় সুশীল সমাজের সদস্যদের তীব্র সমালোচনা করে সাবেক আইন প্রতিমন্ত্রী বলেন, জঙ্গীবাদী নাশকতাকারীদের বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেভাবে দমন করা হয় আমাদের দেশেও সেভাবে তাদের দমন করা হবে। মুক্তিযুদ্ধের সময় কিছু বুদ্ধিজীবী পাক হানাদার বাহিনীর বর্বরতাকে সমর্থন দিয়েছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, সব সময় সব দেশে কিছু জ্ঞানপাপী থাকে। আমাদের দেশ ও তার ব্যতিক্রম নয়। তবে তারা সংখ্যায় খুবই নগন্য।
দেশের মানুষ মহান মুক্তিযুদ্ধের মত সন্ত্রাসী ও জঙ্গীবাদীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ উল্লেখ করে কামরুল বলেন, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সন্ত্রাসী নাশকতাকারী জঙ্গীদের কঠোর হস্তে দমন করবে।