Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:১২ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটটের জন্য ফ্রান্সের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি

দেশের প্রথম বাণিজ্যিক ও সম্প্রচার স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ তৈরি ও উৎক্ষেপণের জন্য ফ্রান্সের প্রতিষ্ঠান থ্যালেসএলেনিয়া স্পেস-এর সঙ্গে বাংলাদেশ টেলিকম্যুনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) বুধবার ১ হাজার ৯৫১ কোটি টাকার একটি চুক্তি স্বাক্ষর করছে।
বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ এবং থ্যালেস এলেনিয়া স্পেস-এর চেয়ারম্যান ও চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার জ্যঁ লইক গ্যল নগরীর একটি হোটেলে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।
যুগান্তকারী এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ইমরান আহমেদ এমপি।
চুক্তি অনুযায়ী যোগাযোগ ও সম্প্রচার সার্ভিসের জন্য থ্যালেসএলেনিয়া স্পেস স্যাটেলাইট তৈরি, উৎক্ষেপণ ও রক্ষণাবেক্ষণ করবে। স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের জন্য এই প্রতিষ্ঠানটি সময় পাবে ২৪ মাস।
সরকার দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের ৪৫তম বার্ষিকী উপলক্ষে ১৬ ডিসেম্বর স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণ করতে চায়। আগামি ১৬ ডিসেম্বর থেকে স্যাটেলাইট তৈরি এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাজ শুরু করা হচ্ছে।
অনুষ্ঠানে তারানা হালিম বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’ উৎক্ষেপণে আমাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণে এই চুক্তি একটি চূড়ান্ত পদক্ষেপ।’
তিনি বলেন, ‘আমি এটা উল্লেখ করতে গর্ববোধ করছি যে, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ স্যাটেলাইট অধিকারী এক্সক্লুসিভ ক্লাবের ৫৭তম সদস্য হবে।’
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরী। এ সময় ফরাসী রাষ্ট্রদূত সোফি অবের উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, আর্থিক ও কারিগরি প্রস্তাবনা যাচাই বাছাই করে বিটিআরসি’র সুপারিশ অনুযায়ী স্যাটেলাইটের কাজের জন্য সরকার থ্যালেস এলেনিয়া স্পেসকে নির্বাচিত করেছে।
বিটিআরসি’র আন্তর্জাতিক টেন্ডারে অংশ নেয় ৪টি কোম্পানী। এগুলো হলো চীনের গ্রেটওয়াল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন, ফ্রান্সের থ্যালেস এলেনিয়া স্পেস, যুক্তরাষ্ট্রের অরবিটাল এটিকে এবং কানাডার এমডিও করপোরেশন।
সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত কেবিনেট কমিটি থ্যালেস এলেনিয়া স্পেসকে অনুমোদন দেয়।
এই টেন্ডারে সর্বনি¤œ দরপত্র জমা দিয়েছিলো এমডিও করপোরেশন। তাদের দর ছিলো ২২ কোটি মার্কিন ডলার। অন্যদিকে থ্যালেসএলেনিয়া স্পেস-এর দরপত্রে ব্যয় ধরা হয়েছিলো ২৪ দশমিক ৮০ কোটি মার্কিন ডলার। তারপরও বিটিআরসি থ্যালেস এলেনিয়া স্পেসকে নির্বাচিত করে। কারণ, তাদের কারিগরি প্রস্তাবনা এমডিও করপোরেশনের চেয়ে ভালো।
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে ৪০টি ট্রান্সপন্ডার থাকবে। সার্ক দেশসূহ, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপিন্স, এমনকি তুর্কেমেনিস্তান, কিরগিজস্তান ও তাজিকিস্তানও এর আওতাভুক্ত থাকবে।
একটি স্যাটেলাইট ছাড়াও এই প্রকল্পের আওতায় গাজীপুরের জয়দেবপুর ও রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় দুটি ভূ-স্তর স্টেশন থাকবে।
টেলিভিশনের বিভিন্ন চ্যানেল, টেলিফোন ও রেডিও কানেকটিভিটির জন্য বাংলাদেশের প্রতিবছর ব্যয় হয় ১৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।
এই উপগ্রহটি উৎক্ষেপণ করা হলে সম্প্রচার ব্যয় বাবদ প্রতিবছর ১১০ থেকে ১২০ কোটি টাকা সাশ্রয় হবে।