ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:৫৩ ঢাকা, শুক্রবার  ১৯শে জানুয়ারি ২০১৮ ইং

বঙ্গবন্ধু দেশে সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিলেন : আমু

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রীয় কাঠামোয় দেশে সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিলেন।
তিনি আজ বিকেলে রাজধানীর শাহবাগস্থ জাতীয় জাদুঘরে প্রধান মিলনায়তনে জাতীয় জাদুঘরের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে জানানোর লক্ষ্যে আয়োজিত গল্প বলার এক অনুষ্ঠানে একক বক্তা হিসেবে এ কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় জাদুঘরের বোর্ড অব ট্রাস্টির সভাপতি এম আজিজুর রহমান এবং অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক আবেদ খান।
বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সহচর আমির হোসেন আমু বলেন, সমাজতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মধ্যে গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার জনক ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু জার্মানীর হিটলার বা ইতালীর মুসোলনীর মতো একনায়কতান্ত্রিক মনোভাব নিয়ে রাজনীতিতে আসেননি। তিনি রাজনীতিতে এসেছিলেন জাতীয়তাবাদের জনক হিসেবে।
আওয়ামী লীগের এ প্রবীণ নেতা বলেন, বঙ্গবন্ধু যুক্তফ্রন্ট সরকারের মন্ত্রীত্ব বাদ দিয়ে দলকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ গ্রহণ করেছিলেন।
বঙ্গবন্ধুর সাথে ১৩ আগস্ট তার শেষ সাক্ষাৎ হয়েছিল উল্লেখ করে আমু বলেন, নিজেকে হত্যা করা হবে বঙ্গবন্ধু তা ভাবতেই পারেননি। ১৯৭৫ সালের ১০ আগস্ট যশোর ক্যান্টনমেন্টে কর্মরত জ্যেষ্ঠ এক সেনা কর্মকর্তা তাঁকে হত্যা করা হতে পারে বলে বঙ্গবন্ধুকে জানিয়েছিলেন।
এ বিষয়ে তিনি বলেন, ওই সেনা কর্মকর্তার এ তথ্যের বিষয়ে বঙ্গবন্ধু ঠাট্টা করে বলেছিলেন, ও যশোর থেকে ঢাকায় বদলী হয়ে আসতে চায়, তাই সে এ ধরনের তথ্য দিয়েছে।
আমির হোসেন আমু বলেন, ভারতীয় মিত্র বাহিনী দ্রুত বাংলাদেশ থেকে চলে যাওয়ায় বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা সম্ভব হয়েছে বলে অনেকে মনে করেন। ভারতীয় সেনাবাহিনী দেশে থাকলে বঙ্গবন্ধুকে জীবন দিতে হতো না।
অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে নানা বয়েস ও শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। আমির হোসেন আমু বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে তাদের গল্প শুনান। তারা মন্ত্রমুগ্ধের ন্যায় বঙ্গবন্ধুর গল্প শুনেন।