Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:৩৮ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

আছাদুজ্জামান মিয়া
ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া, ফাইল ফটো

বইমেলা প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে: ডিএমপি

একুশে গ্রন্থমেলা উপলক্ষে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় ব্যাপক পরির্বতন এনেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। নিরাপত্তার স্বার্থে সূর্যাস্তের আগেই বইমেলা বেষ্টনির বাইরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কেউ অবস্থান করতে পারবে না। এমন তথ্য জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, অতীত অভিজ্ঞতার আলোকে এবারের বইমেলায় নিরাপত্তা ব্যবস্থায় এমন পরিবর্তন আনা হয়েছে। বইমেলা প্রাঙ্গণে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে।

রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় মিন্টো রোডে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে অমর একুশে বইমেলার নিরাপত্তা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য জানান ডিএমপি কমিশনার।

তিনি বলেন, বইমেলা চত্বরে ২ শতাধিক সিসি টিভি ক্যামেরা দ্বারা মনিটরিং করা হবে। দু’জন ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা সার্বক্ষণিক তদারকি করবেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, কোনো লেখক, প্রকাশক বা ব্লগার যদি নিরাপত্তার ঝুঁকিতে রয়েছেন বলে মনে করেন তাহলে তাৎক্ষণিক পুলিশ কন্ট্রোল রুমে জানাবেন। আমরা তাদের বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করব।

তিনি আরো জানিয়েছেন, নিরাপত্তার স্বার্থে সূর্যাস্তের আগেই বইমেলা বেষ্টনির বাইরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এবার কেউ অবস্থান করতে পারবে না।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, অভিজিৎ হত্যাকাণ্ডসহ সকল প্রকার পূর্ব অভিজ্ঞতা ও হুমকিকে মাথায় রেখেই বইমেলায় এবার নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। অভিজিৎ হত্যাকাণ্ডের সময় বইমেলায় লাইটিংয়ের ঘাটতি ছিল, তবে এবার পর্যাপ্ত লাইটিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও ফায়ার টেন্ডার ও লাইটিং ইউনিট মোতায়েন করা হবে।

বইমেলার নিরাপত্তার বিষয়ে কমিশনার আরো বলেন, এবারের বইমেলায় পৃথক প্রবেশ এবং বাহিরপথ রাখা হয়েছে। প্রতিটি প্রবেশ পথে আর্চওয়ে গেট থাকবে। মেলায় আগত সবার ব্যাগ তল্লাশি করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে মহানগর গোয়েন্দার (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলামসহ ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা। এর আগে আজ বিকালে অমর একুশের ভাষা শহীদদের স্মরণে আয়োজিত এ মেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।