Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:২৭ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফের গণজাগরণ মঞ্চের অবস্থান কর্মসূচি শুরু

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

রাজনীতির নামে মানুষ হত্যার প্রতিবাদসহ ছয় দফা দাবিতে গণজাগরণ মঞ্চের অবস্থান কর্মসূচি চলছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরে সমবেত হতে শুরু করেন জাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। শিক্ষক-সংস্কৃতি কর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষও তাদের সঙ্গে যোগ দেন।
টিএসসি থেকে শাহবাগমুখী রাস্তার মাথায় রাস্তা আটকিয়ে এ কর্মসূচি শুরু করে ইমরান এইচ সরকার-সমর্থক অংশটি। শাহবাগে জাতীয় যাদুঘরের সামনের রাস্তায় গোল হয়ে বসে গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ বন্ধ, জামায়াত-শিবিরকে নিষিদ্ধসহ যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসির দাবিতে নানা শ্লোগান দিচ্ছেন তারা।
হরতাল-অবরোধের নামে দেশজুড়ে যে নাশকতা চলছে তা বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত এই অবস্থান চলবে বলে জানিয়েছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। তিনি বলেন, দেশজুড়ে সহিংসতার প্রতিবাদে ছাত্র-শিক্ষকসহ কর্মজীবী, পেশাজীবী মানুষকে সাথে নিয়ে আমাদের এই অবস্থান। সহিংসতা বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত আমাদের অবস্থান চলবে।
জামায়াতই দেশব্যাপী সহিংসতা চলাচ্ছে অভিযোগ করে ইমরান বলেন, এই যুদ্ধাপরাধী সংগঠনটি গণতন্ত্রের নামে, বিভিন্ন মানুষের অধিকারের নামে কথা বলে। তারা একটি অপরাজনীতি করে মূলত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার রুখে দেওয়ার চেষ্টা করছে।
পাশেই কামাল পাশা চৌধুরীর অংশটিও মাইকে বিভিন্ন প্রতিবাদী সংগীত পরিবেশন করছে। বেলা একটার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে কামাল পাশা চৌধুরী জানান, বিকেল তিনটা থেকে তার সমর্থক অংশটিও শাহবাগে লাগাতার অবস্থান করবে।
শাহবাগে দুপক্ষের  এই অবস্থানে ব্যাপক শব্দদূষণ হচ্ছে ও একদিকের রাস্তা বন্ধ থাকায় সৃষ্টি হয়েছে যানজট।
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ডাকে গত ৫ জানুয়ারি থেকে সারা দেশে অবরোধ চলছে। অবরোধের ফাঁকে ফাঁকে হরতালেরও ডাক আসছে বিএনপি-জামায়াত জোটের পক্ষ থেকে। এসব কর্মসূচিতে প্রায় প্রতিদিনই রাজধানীসহ সারা দেশে গাড়িতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ, অগ্নিসংযোগ ও হাতবোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে, যাতে অর্ধশতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে।