ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৩০ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

তারানা হালিম
ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম -ফাইল ফটো

ফেব্রুয়ারি থেকে মোবাইলসেটেরও নিবন্ধন

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে গ্রাহকের কাছে থাকা মোবাইল হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের প্রক্রিয়া শুরু হবে।
বুধবার টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি কার্যালয়ে সিম নিবন্ধন সংক্রান্ত বায়োমেট্রিক পদ্ধতির উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ তথ্য জানান।
তারানা হালিম বলেন, এটা হলে একজন নাগরিকের সম্পূর্ণ ডিজিটাল আইডেনটিটি হবে। কেউ এক বা একাধিক সিম ও মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে তা তারই নামে হতে হবে।
তিনি বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) ছাড়া অন্য বৈধ পরিচয়পত্র দিয়ে মুঠোফোন সিম নিবন্ধন করা হলে সেটির মেয়াদ থাকবে সর্বোচ্চ ছয় মাস। এ সময়ের মধ্যে এনআইডি দিয়ে নিবন্ধন না করলে চালু থাকা ওই সিমটি বন্ধ করে দেয়া হবে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, সিম নিবন্ধন পদ্ধতির শুরুতে কিছুটা ত্রুটি ছিল, সেটি শুধরে নিয়ে আজ থেকে এর যাত্রা শুরু হলো। এর মাধ্যমে নতুন সিম নিবন্ধনের পাশাপাশি যাদের নিবন্ধিত সিম ত্রুটিপূর্ণ তাদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
বিটিআরসির এক কর্মকর্তা বলেন, প্রাথমিকভাবে হ্যান্ডসেট নম্বর নিবন্ধনে মোবাইল ফোন অপারেটরদের কাস্টমার কেয়ার ব্যবহার করা হবে। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সব গ্রাহককে সিম নিবন্ধন করতে হচ্ছে। সিম নিবন্ধনের সময় হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের কাজটিও করে নেয়া হবে।
সংবাদ সম্মেলনে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও মোবাইল অপারেটরদের প্রধান নির্বাহীরা উপস্থিত ছিলেন।
বিটিআরসির মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এমদাদ উল বারি বলেন, যুক্তিসংগত কারণে যাদের এখনো এনআইডি নেই বা নিতে পারেননি, তারাই অন্য বৈধ পরিচয়পত্র দিয়ে সিম নিবন্ধন করতে পারবেন। এভাবে নিবন্ধিত সিমের মেয়াদও ছয় মাস থাকবে।