ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:৫১ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফিলিপাইনে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় ‘হাগুপিট’

ফিলিপাইনের পূর্বঞ্চলীয় দ্বীপগুলোতে শনিবার ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৭৫ কিলোমিটার গতিবেগে আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় হাগুপিট। ভূমিকম্পের পর সামার প্রদেশের ডোলেরস শহরসহ বিভিন্ন এলাকায় ভূমিধসের খবর পাওয়া গেছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো প্রাণহানির খবর পাওয়া

ঘূর্ণিঝড়ে উপকূলীয় শহরগুলোর গাছপালা উপড়ে গেছে এবং বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ফলে সমুদ্রের শক্তিশালী ঢেউয়ে ব্যাপক হুমকির মুখে পড়েছে। এই ঝড়ের কবলে পড়ে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে সরে যাচ্ছেন এসব এলাকার শত শত বাসিন্দা। হাগুপিটের আঘাতে ফিলিপিন্সের টাকলোবান শহরে বেশকিছু ভবনের ছাদ উড়ে গেছে বলেও খবর পাওয়া গেছে। ওইসব এলাকার লোকজন স্থানীয় স্কুল, গীর্জা এবং খেলাধুলার কেন্দ্রগুলোতে আশ্রয় নিয়েছে বলে বিবিসি জানিয়েছে।সেখানে বিদ্যুতের অভাবে তারা মোমবাতি জ্বালিয়ে রাত কাটাচ্ছে।

গত বছর ফিলিপাইনে আঘাত হেনেছিল ঘূর্ণিঝড় হাইয়ান। ২০১৩ সালের ওই ঝড়ে দেশটিতে ৭ হাজারেরও বেশি মানুষ  প্রাণ হারিয়েছিল। এবার হাগুপিট ঘূর্ণিঝড়েও ভয়াবহ ক্ষয়ক্ষতির আশংকা করছেন স্থানীয়রা।

ফিলিপাইনের সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন বিভাগ জানিয়েছে, যেসব এলাকা ঘূর্ণিঝড়ের ঝুঁকিতে রয়েছে, সেখানে প্রশিক্ষিত উদ্ধারকারী দল মোতায়েন করা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় হাগুপিট আরো শক্তিশালী হয়ে পূর্ব ও উত্তরাঞ্চলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানা গেছে। বিবিসির সংবাদদাতা জানাচ্ছেন, ওই অঞ্চলে সবাই রাস্তা-ঘাট থেকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যেতে শুরু করেছে।  আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বাতাসের গতিবেগ ঘন্টায় সর্বোচ্চ ২৫০ কিলোমিটার পর্যন্তও উঠতে পারে।

এদিকে উপকূলীয় শহরে রাস্তাগুলো পরিষ্কার রাখতে এবং সম্ভাব্য লুটপাট ঠেকাতে হাজার হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।