Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৪:২৭ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ওবায়দুল কাদের - মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
ওবায়দুল কাদের - মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

ফখরুল সাহেব ওইদিন আর ফিরে আসবে না : ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ২০০১ সালে যা হয়েছে ২০১৮ সালেও তার পুনরাবৃত্তি ঘটবে না। তিনি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উদ্দেশ্যে বলেন, ফখরুল সাহেব ওইদিন আর ফিরে আসবে না।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি নেতারা মনে করেছেন, ২০০১ সালে যা হয়েছে ২০১৮ সালেও তার পুনরাবৃত্তি ঘটবে। এটা যদি মনে করেন, তাহলে বোকার স্বর্গে বাস করছেন।

ওবায়দুল কাদের আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় এ কথা বলেন। ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন ও এনামুল হক শামীম, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ফখরুল সাহেব ওইদিন আর ফিরে আসবে না। ২০১৮ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্ব আমরা বিজয়ী হব এবং বিজয়ের হ্যাট্রিক করব। আপনারা নিজেদের ভুলে একবার ইলেকশন করেন নি।’

ছয় দফা দিবস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের জীবন থেকে ছয় দফা দিবস অনেকটা হারিয়েই গেছে। আওয়ামী লীগ ছাড়া, এখন আর কেউ এই দিনের চেতনা ধারণ করে না। যারা ৭জুন পালন করে না, তারা ৭মার্চও পালন করে না। ৭ মার্চ ও ৭ জুনের চেতনা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাও আদর্শে বিশ্বাস করে না, তারাই ৭মার্চ ও ৭জুন পালন করে না।

ঐতিহাসিক ছয় দফার প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, আজকে আমরা বলতে পারি ২০০৯ সালে সরকার গঠনের সময় এই দেশে গড় আয় ছিল ৫শ’ ডলার। সেই দেশে আজকে গড় আয় ১৬০০ মার্কিন ডলারের দিকে চলে গেছে। এরই নাম হচ্ছে অর্থনৈতকি মুক্তি। আজকে সারা পৃথিবী থেকে প্রশংসা এবং সমর্থন কুড়াচ্ছে।

‘২০১৮ সাল হবে জনগণের বছর’ বেগম খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের জবাবে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আমরাও তাই বলি শুধু ২০১৮ সাল কেন প্রতিটি বছরই হবে দেশের জনগণের। জনগণের নেত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের মধ্যদিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, ভবিষ্যতেও এগিয়ে নিয়ে যাবেন। ২০১৮ সালে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হয়ে আবার ক্ষমতায় আসবে। তাই ২০১৮ সাল হবে জনগণের বছর এতে কোন সন্দেহ নেই।

আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আগামী নির্বাচনে বিএনপিকে অংশ গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা (বিএনপি) অন্য কোন পন্থা অবলম্বন না করে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন। পিছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার কোন সুযোগ নেই।