ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:১৫ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলী

‘প্রাণভিক্ষা চাইবেন কি-না সিদ্ধান্ত জানাতে সময় চান মীর কাসেম’

রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাইবেন কিনা, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে আরো সময় চেয়েছেন ফাঁসির আদেশপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলী। কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর জেলসুপার প্রশান্ত কুমার বনিক এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

প্রশান্ত কুমার বনিক জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা দিকে মীর কাসেম আলীকে রাষ্ট্রপতির নিকট প্রাণ ভিক্ষার আবেদনের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল। তিনি প্রাণভিক্ষা চাওয়া সিদ্ধান্তের বিষয়ে আরো কিছু সময় চেয়েছেন। সেই সময় কতটা এটা নিশ্চিত করে তিনি কিছু জানাননি।

তিনি জানান, এ সময়টা আর কতটুকু দেয়া হতে পারে সেটা সরকার ও কারা বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবেন।

মঙ্গলবার রাত ১২টা ৪৮ মিনিটে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মীর কাসেম আলীর রিভিউ খারিজ সংক্রান্ত রায়ের কপি গাজীপুরে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এসে পৌঁছেছ দেয়া হয়। রাত অনেক বেশি হওয়ায় রাতে মীর কাসেম আলীকে তা পড়ে শুনানো হয়নি। বুধবার সকাল সাড়ে সাতটায় আনুষ্ঠানিকভাবে পড়ে শুনানো হয়। ৬৩ বছর বয়সী মীর কাসেম আলী কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের ফাঁসির কনডেম সেলে বন্দী রয়েছেন।

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আলবদর কমান্ডার ও জামায়াতের শুরা সদস্য মীর কাসেম আলীকে ২০১৪ সালের ২ নভেম্বর মৃত্যুদণ্ড দেয় যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। চলতি বছরের ৮ মার্চ আপিল বিভাগ মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রাখে। এরপর রিভিউ আবেদন করলে সেটিও খারিজ হয়ে যায়।