ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:৪০ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

হাসানুল হক ইনু
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, ফাইল ফটো

‘প্রাণভিক্ষার আবেদন দুজনেই করেছিল এ নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই’

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের বিচার আন্তর্জাতিক মানদণ্ডেই হয়েছে। আইনের সর্বোচ্চ সুযোগ দেয়া হয়েছে। তারা প্রাণভিক্ষার আবেদনও করেছে। এটি নিয়ে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেই। রোববার সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এ কথা বলেন।
বিরোধীদলের রাজনীতিক নয়, অপরাধীর শাস্তি হয়েছে বলে মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় তারা যে অপরাধ করেছে সেই অপরাধের অভিযোগে তাদের বিচার করা হয়েছে। তিনি বলেন, সর্বোচ্চ আদালত সাকা-মুজাহিদের ফাঁসির রায় দিয়েছে। আদালতের রায় বাস্তবায়ন করা হয়েছে মাত্র।
ইনু বলেন, যারা বলছেন- বিরোধীদলের নেতাদের রাজনৈতিকভাবে দমনে এ বিচার করা হচ্ছে, তা সঠিক নয়। মনে রাখতে হবে তারা অপরাধী। এখানে রাজনীতি বিবেচ্য নয়। প্রকাশ্যে আদালতে তাদের বিচার হয়েছে। এটি কোনো গোপন বিচার ছিল না। এটা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর সুযোগ নেই বলে তিনি জা
মন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রপতি দুই অপরাধী প্রাণভিক্ষা চাইলে তাদের ক্ষমতা করে দিতে পারেন। তবে বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে কিছু করতে পারেন না। সংবিধানের ৪৯ ধারা মোতাবেক তারা দুজনেই আবেদন করেছে। বর্তমান সরকার বিদেশি কোনো রাষ্ট্রের চাপ আমলে নেয় না বলেও জানান তিনি।