ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:১৬ ঢাকা, বুধবার  ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সিস্ট
সিস্ট একটি জটিল সমস্যা

প্রলেপে মুছে যাবে সিস্ট

সিস্ট একটি জটিল সমস্যা। শরীরের যে কোনও স্থানে সিস্ট হতে পারে। সিস্ট ত্বকের নীচে মসৃণ, গোলাকার এবং শক্ত গঠনের হয়। সিস্ট সাধারণত হয়ে থাকে ইনফেকশনের জন্য, সিবাসিয়াস গ্ল্যান্ড ব্লক হয়ে গেলে, বাহ্যিক কোনও উপাদান প্রবেশ করলে এবং টক্সিনের কারণে সিস্ট হয়।

চিকিৎসকের মতে, সাধারণত ফ্লুইড,গ্যাস বা সেমিসলিড পদার্থ থাকে সিস্টে। যেটি শরীরের ভেতরে টিস্যুর অংশ নয়। এটা খুব সাধারণ এক সমস্যা যা যেকোনও বয়সী মানুষের শরীরের যেকোনও অংশে হতে পারে। সিস্ট সাধারণত বিভিন্ন সাইজের হতে পারে। কোনও কোনও ক্ষেত্রে সিস্টের সাইজ এতো সুক্ষ্ম হয়ে থাকে যা কেবলমাত্র মাইক্রোস্কোপেই ধড়া পড়ে।
আবার অনেক ক্ষেত্রে তা ক্রমশ বাড়তে বাড়তে শরীরের অন্যান্য অঙ্গপ্রতঙ্গ ও টিস্যুর ক্ষতি করে। এমনকি অঙ্গপ্রতঙ্গের স্থানও দখল করে নিতে পারে। সিস্টের বাইরের অংশকে ক্যাপসুল বলা হয়।

সিস্টে কখনো কখনো এরা ব্যথামুক্ত হয় এবং খুব ধীরে বৃদ্ধি পায়। কিন্তু এই সিস্ট যদি সংক্রমিত হয় তাহলে সিস্টে ব্যথা, চুলকানি বা জ্বলুনি হতে পারে। কখনো কখনো সিস্ট ফেটেও যেতে পারে।

সিস্ট যদি কিডনি, লিভার এবং অগ্নাশয়ে হয় তাহলে তা ছোট হয় এবং কোন লক্ষণ প্রকাশ করে না। সিস্ট যদি ত্বকের নীচে হয় তাহলে তা চামড়ার নীচে  লাল ফোলা দেখায় যা স্পর্শ করলে নরম অনুভূত হয়।

গবেষকদের মতে, সিস্ট জটিল রোগ হলেও প্রাথমিকভাবে ধরা পড়লে তা ঘরোয়া উপায়ে নিরাময় করা সম্ভব। আসুন জেনে নিই  কোন কোন উপাদানের মিশ্র প্রলেপে সিস্ট প্রতিরোধ করা যায়!

হলুদ : সিস্ট দূর করতে চমৎকারভাবে কাজ করে হলুদ। এক কাপ উষ্ণ দুধে আধা চা চামচ হলুদ মিশিয়ে পান করুন। এটি রক্তকে বিশুদ্ধ করে এবং পরিপাকের উন্নতি ঘটায়। ভালো ফল পাওয়ার জন্য ১০ দিন হলুদ মেশানো দুধ পান করুন।

অ্যালোভেরা : দিনে কয়েকবার অ্যালোভেরা জেল সিস্টের উপরে ঘষুন। এছাড়াও শরীর থেকে অপদ্রব্য বের হয়ে যাওয়ার জন্য এবং সিস্টকে সংকুচিত করার জন্য এক কাপ অ্যালোভেরার জুস পান করুন।

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার : সিস্ট থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার অত্যন্ত কার্যকরী। ত্বকের পিএইচ-এর ভারসাম্য পুনরুদ্ধার করতে, যে কোনও ইনফেকশন, চুলকানি ও জ্বালা-পোড়ার সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার।

একটি তুলার বল অ্যাপেল সাইডার ভিনেগারে ভিজিয়ে নিয়ে সিস্টটি মুছে নিন। দিনে কয়েকবার এটা করুন।

এছাড়াও এক গ্লাস পানিতে দুই টেবিল চামচ অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে দিনে দুই বার পান করুন।

মধু : ত্বকের নীচের সিস্ট ভালো করার জন্য মধুর প্রলেপ অত্যন্ত কার্যকরী। গম ও ঘাস ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। এর সঙ্গে মধু মিশিয়ে সিস্টের উপর প্রলেপ দিন এবং একটি পরিষ্কার কাপড় দিয়ে ঢেকে দিন। সারারাত এভাবে রেখে দিন। দেখবেন ইতিবাচক পরিবর্তন! সূত্রঃ যুগান্তর।