ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:৪৪ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩ দিনের সরকারী সফর শেষে আজ কুয়ালালামপুর থেকে ঢাকা ফিরেছেন। তিনি মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ নাজিব বিন তুন হাজী আবদুল রাজাকের আমন্ত্রণে এই সফরে যান।
প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিআইপি ফ্লাইট আজ দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময়) হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে।
জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিকী এবং ঊর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তাগণ বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী দুপুর ১২টা ২৫ মিনিটে (মালয়েশিয়া সময়) ঢাকার উদ্দেশ্যে কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন।
মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ উপমন্ত্রী সেরী হাজি ইসমাইল হাজি আবদুল মোত্তালিব ও মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের হাইকমিশনার এ কে এম আতিকুর রহমান কুয়ালালামপুর বিমান বন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান।
সফরকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার বিকেলে মালয়েশিয়ার প্রশাসনিক রাজধানী পুত্র জায়ার পারদোনা স্কয়ারে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ বৈঠক শেষে দু’দেশের মধ্যে জনশক্তি রফতানি, পর্যটন, শিল্প ও সংস্কৃতি খাতে একটি চুক্তি, দু’টি সমঝোতা স্মারক ও একটি প্রটোকলসহ ৪টি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এগুলো হচ্ছে দু’দেশের মধ্যে ভিসা শর্তাবলীর অংশবিশেষের বিলোপন, পর্যটন খাতে একটি, সংস্কৃতি, শিল্প ও ঐতিহ্য খাতে ১টি এবং শ্রমিকদের কর্মসংস্থান সম্পর্কিত ২০১২ সালের সমঝোতা স্মারকের সংশোধনী প্রটোকল।
প্রধানমন্ত্রী বুধবার সকালে গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলের বলরুমে বাংলাদেশে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সুবিধা শীর্ষক এক সংলাপে যোগ দেন। একই দিনে তিনি সেরী পারদোনায় মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে নাজিব রাজাক আয়োজিত নৈশভোজে যোগ দেন।
মঙ্গলবার রাতে শেখ হাসিনা গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে তাঁর সম্মানে প্রবাসী বাংলাদেশীদের এক সংবর্ধনায় যোগ দেন। একই দিন সন্ধ্যায় মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও মালয়েশিয়ার গাড়ি প্রস্তুতকারক প্রোটনের নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান মাহাথির মোহম্মদ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেন।