শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:৩৬ ঢাকা, রবিবার  ১৬ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

প্রধানমন্ত্রীর অবৈতনিক উপদেষ্টার দায়িত্বেও এলেন জয়

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হিসেবে জয়ের বিপুল অংকের বেতন নিয়ে দেয়া লতিফ সিদ্দিকীর বক্তব্য ও পরে তার বেতন নিয়ে আলোচনা এবং তার বেতন সম্পর্কে রাজনৈতিক নেতাদের বিভিন্ন মন্তব্যের মধ্যে সজীব ওয়াজেদ জয়কে প্রধানমন্ত্রীর অবৈতনিক উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে আনুষ্ঠানিক এই নিয়োগ দেয়া হলো। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী জয় এতদিন মা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন। এখন তিনি প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টার দায়িত্বেও এলেন।
 
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে গত ১৭ নভেম্বর প্রজ্ঞাপনটি জারি করা হলেও তা প্রকাশ পায় বুধবার। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক (প্রশাসন) দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর স্বাক্ষরিত এই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী তার ক্ষমতাবলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা পদে নিয়োগ দিয়েছেন। আরও বলা হয়, এই দায়িত্ব পালনে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ও পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করবেন। প্রজ্ঞাপনে লেখা হয়েছে এই নিয়োগ খণ্ডকালীন ও অবৈতনিক।
 উল্লেখ্য , লতিফ সিদ্দিকীর বক্তব্য উদ্ধৃত করে বিএনপি নেতারা দাবি করেন, জয় সরকারি অর্থ নিচ্ছেন, যা বিদেশে চলে যাচ্ছে। মঙ্গলবার এক সভায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন,  প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় প্রতিমাসে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা বেতন নিয়েছেন। এই তথ্য মন্ত্রী ফাঁস করে দেয়ায় লতিফ সিদ্দিকীর চাকরিও চলে গেছে।একদিন পর আরেক সভায় বিএনপি নেতা আ স ম হান্নান শাহ বলেন,  বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর সুপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় মন্ত্রী পদমর্যাদায় প্রতিমাসে ২ লাখ ডলার বেতন নিচ্ছেন। এরকম বেতন রাষ্ট্রপতিও পান না। এভাবে দেশের অর্থ বিদেশে যাচ্ছে, এজন্য মানি লন্ডারিং আইনে মামলা করা যায়। আগামীতে তা কার্য্কর করা হবে।

Like & share করে অন্যকে দেখার সুযোগ দিন