Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:৪৯ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

পেশাগত দক্ষতার কোন বিকল্প নেই, প্রতিরক্ষা রাডারের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি

দেশের আকাশ সীমার পাশাপাশি বিশাল সমুদ্র জলসীমা নজরদারির আওতায় আনতে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর কক্সবাজার রাডার ইউনিটে বিমান প্রতিরক্ষা রাডার (ওয়াই এলসি-৬) সংযোজন করা হয়েছে।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বুধবার কক্সবাজার রাডার ইউনিটে অনুষ্ঠিত এক অনুষ্ঠানে এই আধুনিক রাডারের উদ্বোধন করেন।
তিনি রাডার ইউনিটের কমান্ডিং অফিসার উইং কমান্ডার মেসবাহ হুস সাত্তারের কাছে সংযোজন আদেশ হস্তান্তর করেন।
এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, বিএএফ জাতীয় নিরাপত্তার এবং রাডার সংযোজনের মাধ্যমে জাতির অগ্রগতির জন্য আরো অবদান রাখতে সক্ষম হবে।
তিনি বলেন, যুদ্ধের সময়ে রাডার শত্রু পক্ষের জঙ্গি বিমানের উপস্থিতির আগাম সংকেত দিয়ে থাকে যা কার্যকর প্রতিরক্ষা পদক্ষেপ নিতে সহায়ক। সংযোজিত নতুন রাডার সমুদ্র জলসীমায় বিমান প্রহরায় নির্দেশনা দিতে বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, এর ফলে বিমান বাহিনী ফোর্সেস গোল-২০৩০ বাস্তবায়নে আরো এক ধাপ এগিয়ে যাবে বলে আমি দৃঢ় বিশ্বাস করি।
রাষ্ট্রপতি বলেন, কোন বাহিনীর সফলতার জন্য পেশাগত দক্ষতার কোন বিকল্প নেই। দক্ষতা আস্থা বৃদ্ধি করে এবং খ্যাতি ও মর্যাদা বয়ে আনে। তিনি উন্নত ও সর্বশেষ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে একজন দক্ষ পাইলট, ইঞ্জিনিয়ার, কন্ট্রোলার এবং আদর্শ বিমান সৈনিক হয়ে ওঠার জন্য বিমান সেনাদের প্রতি আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে উত্তম প্রশিক্ষণ, কঠোর পরিশ্রম এবং শৃঙ্খলা বজায় রাখা প্রয়োজন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে কঠোর পরিশ্রম ও সততার কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, দৃঢ় মনোবল, কঠোর পরিশ্রম, উৎসর্গ, দেশপ্রেম এবং সম্পদের সঠিক ব্যবহার আপনার পেশাগত জীবনে সর্বোচ্চ স্থানে পৌঁছতে সহায়ক হতে পারে।
রাষ্ট্রপতি বলেন, আপনার কাছে জনগণের প্রত্যাশা তাদের কল্যাণের জন্য আন্তরিকতার সাথে কাজ করা এবং তাদের ও দেশের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।
রাষ্ট্রপতি রাডার পরিচালনা কক্ষ থেকে সরাসরি সনাক্তকরণ প্রত্যক্ষ করেন।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এর আগে রাডার ইউনিটে পৌঁছলে বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল আবু ইসরার তাকে স্বাগত জানান।