Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:২৪ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘পেনশন গ্রহণকারীদের নামে ১৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ’

১৬ কোটি টাকারও বেশি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সোনালি ব্যাংকের সাবেক ম্যানেজারসহ ২২ সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বুধবার কমিশন মামলাটির অনুমোদন দেয়। দুদকের কুমিল্লা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের কর্মকর্তারা বাদী হয়ে  শিঘ্রই এ  মামলা করবেন বলে জানা গেছে।
দুদক সূত্র জানায়, পরস্পর যোগসাজশে সোনালি ব্যাংকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখা থেকে পেনশন গ্রহণকারীদের নামে ভুয়া ও অতিরিক্ত বিল ভাউচারের বিপরীতে ১৬ কোটি ৬ লাখ ২৯৬২ টাকা আত্মসাৎ করেন ২২ কর্মকর্তা।
আত্মসাৎকারী কর্মকর্তারা হলেন, সোনালি ব্যাংকের ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার তৎকালিন ম্যানেজার সিরাজুল হক, সোনালি ব্যাংকের পরিদর্শন ও নিরীক্ষা বিভাগ-১ এর বর্তমান সহকারি মহা-ব্যবস্থাপক মোঃ ফজলুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার তৎকালিন সিনিয়র অফিসার (ক্যাশ) মোতাহার হায়দার মোল্লা, যুগ্ম-জিম্মাদার (ক্যাশ) মোঃ আবদুল ওয়াদুদ, অফিসার (ক্যাশ) মোঃ মিজানুর রহমান ভুইয়া, মোঃ খলিলুর রহমান, তৎকালিন জেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, অনিল চন্দ্র দাস, বর্তমান সিজিএ অফিসের প্রধান হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা অবিনাশ চন্দ্র মন্ডল, তৎকালিন জেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মালিক নেওয়াজ, শাহ মোঃ মনজুর আহমেদ, বর্তমানে শরীয়তপুর জেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ আবদুল হান্নান, বর্তমান শিক্ষামন্ত্রণালয়ে কর্মরত হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ আবু তাহের, বর্তমানে বুড়িচং উপজেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ আবদুল মুমিত চৌধুরী, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তৎকালিন হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা খলিলুর রহমান মোল্লা, বর্তমানে কুমিল্লা জেলা সদর হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা বিল্লাল হোসেন পাটোয়ারি, তৎকালিন এসওএস সুপার কবির আহাম্মদ, তৎকালিন অডিটর (চলতি দায়িত্ব) আনোয়ারুল ইসলাম খান, অডিটর মোঃ নাজমুল আলম, জুনিয়র অডিটর মোঃ আবদুল বারেক ও অডিটর ওয়াহিদুর রহমান।
অনুসন্ধানে তাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় দণ্ডবিধির ৪০৯/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১/১০৯ ও ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় মামলা অনুমোদন করে কমিশন।