ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:৩৪ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

পেঁয়াজের কেজি ৯০ টাকা

ভারতে পেঁয়াজের দাম বাড়ানোর প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশে। মাত্র ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে রাজধানীতে পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ২৫ টাকা বৃদ্ধি পেয়ে এক লাফে ৯০ টাকায় উঠে গেছে।

জোগান বাড়ানোর উদ্দেশ্যে আরেকদফা পেঁয়াজের রপ্তানি মূল্য বাড়িয়েছে ভারত সরকার।শনিবার দ্বিতীয় দফায় প্রতি টনে ২৭৫ ডলার  বাড়ানো হয়েছে। ফলে পেয়াঁজের ন্যূনতম রপ্তানি মূল্য  প্রতি টন ৭০০ ডলারে দাঁড়িয়েছে।

এর আগে প্রথম দফায় গত ২৬ জুন রপ্তানি মূল্য ২২৫ ডলার বাড়িয়ে ৪২৫ ডলার করাছিল ভারত সরকার। রপ্তানি মূল্য বাড়ানোর ফলে বাংলাদেশসহ প্রতিবেশি দেশগুলির বাজারে পেঁয়াজের দাম বাড়তে শুরু করে। পেঁয়াজের জন্য ভারতের ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল বাংলাদেশ। তাই সবচেয়ে বিপদে পড়েছে বাংলাদেশ।
ভারতে মূল্য বৃদ্ধির খবরে রাতারাতি বাংলাদেশে পেঁয়াজের বাজারে আগুন লেগে গেছে। যদিও বাংলাদেশে এখনো প্রচুর পেঁয়াজ মজুদ রয়েছে। দেশে এখন পেঁয়াজের কোন সংকটও নেই। দেশে প্রতি বছর পেঁয়াজের চাহিদার পরিমাণ ১৫ লাখ টন। স্থানীয়ভাবে উৎপাদন হয় প্রায় ১২ লাখ টন।মাত্র ৩ লাখ টন পেঁয়াজ আমদানি করতে হয়। কিন্তু দেশের মুনাফাখোর মজুতদার ও ব্যবসায়ীরা কৌশলে দেশীয় পেঁয়াজ মজুত করে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে তিনগুণ দামে বিক্রি করছেন। রমজান মাসে পেঁয়াজের কেজি ছিলো মাত্র ৩২ টাকা কেজি। সেই পেঁয়াজ সোমবার রাজধানীর বাজারগুলোতে বিক্রি হয়েছে ৯০ টাকা কেজি।
জানা গেছে, গত কয়েক মাসে বৃষ্টি ও খারাপ আবহাওয়ার কারণে পেঁয়াজ উৎপাদন মার খেয়েছে। ফলে পাইকারি বাজারে তার দাম দাঁড়িয়েছে কেজিতে ৬০ রুপি। খুচরা বাজারে যা পৌঁছে গেছে প্রায় ৮০ টাকায়।
এ অবস্থায় ভারত রপ্তানি বন্ধ করে বাজারে জোগান বাড়িয়ে দাম নিয়ন্ত্রণে আনতে ১০ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি করতে যাচ্ছে।