ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:১৬ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

পুঁজিবাজারে সপ্তাহের শুরুতে সূচকের পতন

সপ্তাহের শুরুতেই সূচকের পতনের মধ্যে দিয়ে লেনদেন শেষ করল দেশের উভয় পুঁজিবাজার। এ দিন মূল্য সূচক কমার পাশপাশি কমেছে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দর। দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের মূল্য সূচক কমেছে ২৪ পয়েন্ট।

শুরুতে উর্দ্ধমুখী ভাবধারায় লেনদেন শুরু হলেও কিছুক্ষণ পরেই শুরু  হয় সূচকরে পতন। চলে বেলা ১১ টা পর্যন্ত। ১১ টার পর থেকে আবার ১২ টা পর্যন্ত লেনদেন হয় ইতিবাচক ধারায়। এসময় সবগুলো সূচকই ওপরের দিকে উঠতে থাকে। বেলা ১২টার পরেই সূচক পুনরায় নেতিবাচক ধারায় ফিরে। একটানা চলতে থাকে লেনদেন শেষ পর্যন্ত। এ সময় প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের(ডিএসই) সবগুলো সূচকেরই পতন ঘটে। কমে যায় অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দর।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, দিনশেষে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার কমে যায়। সবচেয়ে বেশি দরপতন ঘটে সিমেন্ট, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ইঞ্জিনিয়ারিং ও জ্বালানী খাতের কোম্পানির শেয়ার দর। একই সময়ে ঔষধ ও রসায়ন খাতের শেয়ার দর সবচেয়ে বেশি কমে।

এদিন লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ২৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৪ হাজার ৯৪৩ পয়েন্টে এবং ডিএসইএস শরীয়াহ্ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১১৭৩ পয়েন্টে। লেনদেনকৃত ৩০৫ টি কোম্পানি ও মিউচুয়্যাল ফান্ডের মধ্যে শেয়ারের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ১১০টির, কমেছে ১৫২ টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৩ টির শেয়ারের দর। টাকার পরিমানে মোট লেনদেন হয়েছে  ৩০৮ কোটি ৪৪ লাখ টাকার।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) অবস্থাও ছিল একই রকম। এবাজারেও সূচকের নেতিবাচক প্রবণতার মধ্যদিয়ে শেষ হয়েছে লেনদেন। দিনশেষে সার্বিক সূচক ৭৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৫ হাজার ১৮০ পয়েন্টে। দিন শেষে অধিকাংশ শেয়ারের দর কমে যায়। লেনদেনকৃত ২৩৪ টি কোম্পানি ও মিউচুয়্যাল ফান্ডের শেয়ারের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৩টির, কমেছে ১২৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টির। টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ২৬ কোট ৯৭ লাখ টাকার।