ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:০৩ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

আবুল মাল আব্দুল মুহিত
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, ফাইল ফটো

পুঁজিবাজারে দুবার বুদবুদের সঙ্গে পরিচয়

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, পূঁজিবাজার বড়ই জটিল। পুঁজিবাজারে দক্ষতার বিকল্প নেই। এখানে কাজ করতে হলে কিংবা যারা এখানে কাজ করেন তাদের অতিরিক্ত বুদ্ধিমান ও দক্ষ হওয়া প্রয়োজন। এই দক্ষতা বাড়াতে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের (বিআইসিএম) জন্ম হয়েছে।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর তোপখানা রোডে বিআইসিএম সভাকক্ষে আয়োজিত ‘পোস্টগ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন ক্যাপিটাল মার্কেট (পিজিডিসিএম)’ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বিআইসিএম পরিচালনা পর্ষদ ও বিএসইসি’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অর্থমন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ড. এম আসলাম আলম ও বিআইসিএমের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আবদুল হান্নান জোয়ারদার।
অর্থমন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজার অত্যন্ত জটিল। এই বাজারে ওঠা-নামা একটা স্বাভাবিক ব্যাপার। প্রতিটি পুঁজিবাজারে সেটা হয়ে থাকে। এই বাজার নিয়ে বেশি কথা বলা ঠিক না। বেশি কথা বললে এই বাজারের জটিলতা আরো বেড়ে যায়।
মুহিত বলেন, আমাদের পুঁজিবাজারের বয়স ৭০ বছরের বেশি। এই বাজারে দুবার বুদবুদের সঙ্গে আমাদের পরিচয় হয়েছে। পুঁজিবাজারে বুদবুদের সঙ্গে পরিচয় হওয়া আশ্চর্যের কিছু নয়। প্রথম বুদবুদ আসার পর বাজার প্রায় ৮ থেকে ১০ বছর নিস্তেজ ছিল। আর দ্বিতীয় বুদবুদ থেকে উত্তরণে আমাদের ৪ থেকে ৫ বছর লেগে গেছে। তবে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) পুঁজিবাজারকে অত্যন্ত শক্ত অবস্থানে নিয়ে গেছে।
তিনি আরো বলেন, বিআইসিএম ইন্সটিটিউট হিসেবেই থাকুক, এখানে পিএইচডি প্রোগ্রামের কোনো প্রয়োজন নেই। পিএইচডি করার জন্য দেশে প্রায় ৫০টির বেশি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। যারা পিএইচডি করতে চান তারা এ ইনস্টিটিউটকে গবেষণার জন্য ব্যবহার করতে পারবেন।
ড. এম আসলাম আলম বলেন, পুঁজিবাজারের উন্নয়নে সরকার দক্ষতার উপর বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন। যে কারণে ২০১০ সালে সরকার পূঁজিবাজার সংক্রান্ত বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিতে বিআইসিএম নামের এ ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করেছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে বাজারের স্থিতিশীলতা ও উন্নয়নে বিশাল ভূমিকা রাখছে বিআইসিএম। মাত্র চার বছরে প্রতিষ্ঠানটি যে সফলতা দেখিয়েছে তা দেশের জন্য নজির হয়ে থাকবে।
বিএসইসি’র চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন বলেন, পূঁজিবাজার একটি জ্ঞানভিত্তিক বাজার। এ জ্ঞানের উৎকর্ষতা সাধনের জন্য ২০১০ সালে বিআইসিএমের যাত্রা। এ কোর্স শেষ করার পর শিক্ষার্থী পুঁজিবাজের বেসিক এনালেটিক্যাল নিয়ম-কানুন সম্পর্কে জানতে পারবেন। পূঁজিবাজার সংক্রান্ত সব ধরণের মানুষদের প্রশিক্ষণ দিতে বিআইসিএমকেও আরো সক্ষমতা অর্জন করতে হবে।
নির্বাহী প্রেসিডেন্ট আবদুল হান্নান জোয়ারদার বলেন, প্রতিষ্ঠার পর মাত্র চার বছরে ৬ সপ্তাহব্যাপী ২৯টি সার্টিফিকেট কোর্সের অধীনে ৬০৪ জনকে এবং বিনা ফিতে ৩ হাজার ২৫১জন বিনিয়োগকারীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে বিআইসিএম। নতুন করে একবছর মেয়াদে শুরু হলো স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা কোর্স (পিজিডিসিএম) শুরু হলো। তিনি বলেন, পুঁজিবাজারের ও এ প্রতিষ্ঠানের প্রশিক্ষণের উন্নয়নে একটি নিজস্ব ভবন দ্রুত প্রয়োজন। এ লক্ষ্যে একটি নিজস্ব ভবন নির্মাণ ও অনুষদের উন্নয়নে সরকারকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।