Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:৪২ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

“পাক-ক্যান্টনমেন্টে আমোদ-স্ফুর্তিতে থাকায় মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে কিছুই জানেনা খালেদা”

আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাপরাধ গণ বিচার’ এর আহ্ববায়ক ও নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, বেগম জিয়া ’৭১-এর শহীদের নিয়ে ধৃষ্টতাপূর্ণ যে বক্তব্য রেখেছেন এ জন্য জাতির কাছে তাকে ক্ষমা চাইতে হবে। তিনি বলেন, বেগম জিয়া মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে কিছুই জানেন না। তিনি ’৭১ সালে পাকিস্তানী ক্যান্টনমেন্টে থেকে আমোদ-স্ফুর্তি করেছেন। মুক্তিযুদ্ধে কয়জন শহীদ হয়েছেন, কয়জন আহত হয়েছেন তিনি কিভাবে তা জানবেন।

মন্ত্রী আজ বাংলা মটরের কাছে ফেয়ারলী হাউজের মাঠে শ্রমিক, কর্মচারী, পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের এক মত বিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন। এতে বক্তব্য রাখেন, কর্মচারী, পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব আব্দুল মালেক মিয়া, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ইসমত কাদির গামা, সাংবাদিক অঞ্জন রায়, শ্রমিক নেতা জেড এম কামরুল আনাম ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন মিয়া প্রমূখ।
শাজাহান খান বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাক সেনা বাহিনী এ দেশ থেকে সোনা গয়না, অস্ত্র-সস্ত্র সহ বিভিন্ন সামগ্রী লুট করে নিয়েছে। এগুলো পাক বাহিনী গণিমতের মাল বলতো। আমাদের সরকারের কাছে আবেদন আমাদের লূটের মাল ফেরত আনার জন্য পকিস্তানকে চাপ দিতে হবে।
তিনি বলেন, জামাত নেতা মতিউর রহমান নিজামীর হাইকোর্ট ফাঁসির জন্য রায় দিয়েছে। নিজামী সুপ্রিম কোর্টে আপীল করেছে। আগামী ৬ জানুয়ারী আপিল বিভাগ রায় ঘোষণা করবে। তার ফাঁসি বহাল রাখার দাবিতে আমরা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণ অবস্থান নেব। সে দিন হাজার হাজার মুক্তিযোদ্ধা সেই গণ অবস্থানে অংশ নেবে। এবং শ্রমিক কর্মচারী, পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদ নেতা কর্মীদের সেই গণ অবস্থানে অংশ নেয়ার জন্য তিনি আহ্বান জানান।
শাজাহান খান বলেন, এ আন্দোলন শান্তিপূর্ণ আন্দোলন। প্রবাসীদের যার অবস্থান থেকে জনমত গড়ে তুলতে হবে। তিনি ৩রা জানুয়ারী মতিঝিলের শাপলা চত্বরে আন্তর্জাাতিক যুদ্ধ অপরাধ গণবিচার আয়োজিত সমাবেশে যোগদানের আহ্বান জানান। বাসস