ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:১৫ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

পাকিস্তানে সেনা অভিযান সমাপ্ত, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে

পকিস্তানের পেশোয়ারে জঙ্গি হামলার শিকার স্কুলটিতে সেনা অভিযান শেষ হয়েছে। অভিযান শেষে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছে বলে জানা গেছে। ৮ ঘণ্টার এ অভিযানে ৬ জঙ্গি নিহত হয়েছে। এছাড়া ৯৬০ জনকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। এখন পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ১৪১ যার মধ্যে শতাধিক শিশু রয়েছে। আহতের সংখ্যাও শতক ছাড়িয়েছে। এ ঘটনায় তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে পাকিস্তান সরকার।

এর আগে স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০ টায় তালেবান পেশোয়ার শহরের আর্মি পাবলিক স্কুলে হামলা চালায় জঙ্গিরা। এ সময় সেখানে ৫শ’র বেশি শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা ছিলেন।

পেশোয়ারের বার্সাক রোডের এ স্কুলটিতে ৮ থেকে ১০ বছর বয়সী শিশুরা পড়াশুনা করে। পাকিস্তান সেনাবাহিনী দেশব্যাপী এ ধরনের ১৪৬টি স্কুল পরিচালনা করে। স্কুলটিতে সেনা কর্মকর্তার স্ত্রীরাও শিক্ষকতা করেন।

ডন অনলাইন জানিয়েছে, সকালে তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) ৫-৬ জন বন্দুকধারী সেনাবাহিনীর পোশাক পরে ‘আর্মি পাবলিক স্কুলে’ প্রবেশ করে এলোপাতড়ি গুলি চালায়।

তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি) এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। টিটিপির মুখপাত্র মোহাম্মদ খোরাসানি এ হামলাকে সম্প্রতি উত্তর ওয়াজিরিস্তানে তাদের বিরুদ্ধে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর অভিযানের প্রতিশোধ বলে উল্লেখ করেছেন।

যদিও তিনি বলেন, ‘বড় শিক্ষার্থীদের ওপর গুলি চালাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে শিশুদের নয়।’

ডন জানায়, স্কুলটিতে পরীক্ষা চলছিল। তালেবান জঙ্গিরা যখন হামলা চালায় তখন অধিকাংশ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় ব্যস্ত ছিল।

সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা প্রবেশের প্রায় আধা ঘণ্টা পরই সেখানে পাকিস্তানের সেনা সদস্যরা পৌঁছে উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

সূত্র: ডন, জিও টিভি, বিবিসি