ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:৪১ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

খালেদা জিয়া
২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া

“পাকিস্তানি গুপ্তচরের অভিযোগে নাগরিকত্ব বাতিলের দাবি খালেদা জিয়া-গয়েশ্বরের”

মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের নাগরিকত্ব বাতিলের দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ‘মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড’।

বুধবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। এ সময় রাষ্ট্রদ্রোহীতার অপরাধে তাদের দু’জনের দ্রুত বিচার দাবি করেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, খালেদা জিয়া পাকিস্তানের এজেন্ট। কোনো পাকিস্তানি গুপ্তচরের এদেশে থাকার অধিকার নেই। যারা বাংলাদেশের শহীদদের সংখ্যা এবং মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটূক্তি করে তাদের এদেশে রাজনীতি করার অধিকার নেই।

এ সময় অবিলম্বে তাদের নাগরিকত্ব বাতিলে সরকারকে ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবি জানান তারা।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড রাবি শাখার আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাবিবের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে রাজশাহী মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ডা. আব্দুল মান্নান, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক খালিদ হাসান, ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি রাবি শাখার সভাপতি মতিউর রহমান মর্তুজা প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।