ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:০৫ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

পহেলা ডিসেম্বরকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস ঘোষণার দাবি তথ্যমন্ত্রীর

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু পহেলা ডিসেম্বরকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস ঘোষণার জন্য রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, চিরবরণীয় মুক্তিযোদ্ধাদের অসীম সাহসিকতায় জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে অর্জিত বিজয়ের মাসের প্রথম দিন পহেলা ডিসেম্বরে জাতি পরম শ্রদ্ধাভরে মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণ করছে।
তথ্যমন্ত্রী আজ সকালে রাজধানীর মিরপুরের মাজার রোডে মুক্তিযোদ্ধা কবরস্থানে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শাহবাগে প্রস্তাবিত মুক্তিযোদ্ধা দিবস উপলক্ষে র‌্যালি উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান।
মুক্তিযোদ্ধাদের দাবি বাস্তবায়ন ও মুক্তিযোদ্ধা দিবস উদযাপন জাতীয় কমিটি আয়োজিত র‌্যালিটি সোহ্রাওয়ার্দী উদ্যানে পৌঁছুলে মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে নির্মিত শিখা চিরন্তনে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের সভাপতি জেনারেল (অব:) কে এম শফিউল্লাহ, মুক্তিযোদ্ধা সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি এড হাবিবুর রহমান শওকত, জেনারেল (অব:) হারুনসহ প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধারা ।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী নৃশংস অপরাধের দায়ে আদালতের রায়ে ফাঁসিপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মুজাহিদের পক্ষে বক্তব্য দিয়ে পাকিস্তান প্রমাণ করেছে যে, তারা বদলায়নি। জামায়াতে ইসলামীও বদলায়নি, রাজাকারেরাও বদলায়নি, শোধরায়নি। তাই জামায়াতে ইসলামী দলকে শুধু নিষিদ্ধই নয়, হিটলারের নাৎসী বাহিনীর মতো বিচারও করতে হবে।’
‘মুক্তিযুদ্ধকালে হত্যা, ধর্ষণ, জ্বালাও-পোড়াও অত্যাচারের দায়ে বিচারাধীন ১২ হাজার অভিযুক্তদের জিয়াউর রহমান মুক্তি দিয়েছেন, তাদের পুনরায় বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো প্রয়োজন’ উল্লেখ করে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘কোন যুদ্ধপরাধীর ছাড় নেই।’
নেতৃবৃন্দ সহ প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধারা এসময় তাদের বক্তৃতায় পহেলা ডিসেম্বরকে মুক্তিযোদ্ধা দিবস ঘোষণার দাবি উত্থাপন করেন।