শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:২৯ ঢাকা, শনিবার  ১৫ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ফাইল ফটো

পর্যবেক্ষকদের এড়াতেই ৩০ ডিসেম্বর ভোট : রিজভী

একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোট চুরি করতেই ৩০ ডিসেম্বর তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়ির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, নির্বাচনে বিদেশি পর্যবেক্ষকরা যাতে না থাকতে পারে, সে জন্যই ৩০ ডিসেম্বর ভোটের দিন নির্ধারণ করেছে ইসি।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ কথা বলেন।

বিএনপির এ নেতা বলেন, ২৫ ডিসেম্বর বড়দিন, থার্টিফার্স্ট ও ইংরেজি নববর্ষের কারণে বিদেশি পর্যবেক্ষক, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার ও কর্মকর্তারা ছুটিতে থাকবেন।

‘সুতরাং তাদের দৃষ্টির অন্তরালেই একটি বড় ভোট চুরির নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে সরকারের কৌশলী নির্দেশেই ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছে ইসি।

রিজভী বলেন, আমাদের আগের দাবি অনুযায়ী নির্বাচন এক মাস পেছাতে হবে। পুনঃতফসিল দিতে হবে।

এ ছাড়া নির্বাচনী প্রচার ও গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচারে সব রাজনৈতিক দলকে সমান সুযোগ দেয়ার দাবি জানান তিনি।

রিজভী আরও বলেন, নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে বিএনপিসহ রাজনৈতিক দলগুলোর নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দেয়া, গ্রেফতার ও হয়রানি বন্ধের নির্দেশ দেয়া হলেও এখনও পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন এলাকায় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ভুয়া মামলা করা হচ্ছে, গ্রেফতার করা হচ্ছে। তল্লাশির নামে বাড়ি বাড়ি হানা দিয়ে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এখনও অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের সামান্যতম পরিবেশ তৈরি করতে ব্যর্থ হয়েছে নির্বাচন কমিশন।

খালেদা জিয়াকে মাইনাস করতে তাকে কারাবন্দি করা হয়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এ পর্যন্ত খালেদা জিয়া যতগুলো নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন, সবই লাখ লাখ ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন, অনেকেই তা পারেননি-এ জন্যই তার প্রতি এত প্রতিহিংসা।