Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:০৭ ঢাকা, শুক্রবার  ১৬ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক
আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, ফাইল ফটো

পরিবহন শ্রমিকরা না বুঝেই ধর্মঘটে : আইনমন্ত্রী

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, সড়ক পরিবহন আইন সঠিকভাবে না বুঝেই পরিবহন শ্রমিকরা ধর্মঘট করছেন। নতুন সড়ক পরিবহন আইন সড়কে দুর্ঘটনা কমানোর জন্য সহায়ক হবে।

আজ ঢাকায় বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নতুন যোগদানকারী বিচারকদের জন্য আয়োজিত দ্বিতীয় ওরিয়েন্টেশন কোর্সের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

আনিসুল হক বলেন, সড়ক পরিবহন আইনে এমন কোন শর্ত বা প্রভিশন নাই যে অন্যায় না করা সত্ত্বেও চালকদেরকে ভোগান্তিতে পড়তে হবে। তিনি পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করার জন্য সড়ক পরিবহণ শ্রমিকদের প্রতি আহবান জানান।

ড. কামাল হোসেনের এক মন্তব্য সম্পর্কে সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার কখনো সংবিধান লঙ্ঘন করেনি। এরপরেও সংবিধান লঙ্ঘনের জন্য যদি আমাকে কখনো আদালতে দাঁড়াতে হয় তবে আমি তা করবো।

বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি খোন্দকার মূসা খালেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক বক্তৃতা করেন।

তিনি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংবাদপত্রের স্বাধীনতা, বাকস্বাধীনতা এবং অন্যকোন স্বাধীনতাই খর্ব করার জন্য করা হয়নি। এটা করা হয়েছে শুধু সাইবার নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্য।

মন্ত্রী আদালতের মামলাজট কমিয়ে আনা প্রসঙ্গে বলেন, আগের ৫৪টি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পাশাপাশি ২০১৮ সালে ২৯টি জেলায় আরো ৪১টি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল স্থাপন এবং বিচারক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এতে মামলা জট অনেক কমবে।

তিন দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণে জেলা জজ পদ মর্যাদার ৪৫ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশ নেন।