Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১১:২৬ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

ড. হাছান মাহমুদ
আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি, ফাইল ফটো

‘পরগাছার মতো টিকে থাকার চেষ্টা করছে বিএনপি’

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, বিএনপি রাজনীতিতে কোন ইস্যু না পেয়ে অন্যের ইস্যুকে ছিনতাই করে পরগাছার মতো টিকে থাকার চেষ্টা করছে।

পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. হাছান মাহমুদ আজ সকালে নগরীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে বিএনপির বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

সাবেক পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে তার মনগড়া ও ভুল তথ্য দিয়ে দেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছেন।’

তিনি বলেন, ‘ বিএনপি জনগণকে বিভ্রান্ত করে দেশে গন্ডগোল সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে।’

আওয়ামী লীগের এ নেতা আরো বলেন, রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করা হলে অতীতের মতো দেশের মানুষকে সাথে নিয়ে বিএনপি-জামায়াতের এ ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে।

এ সময় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফরিদুন নাহার লাইলী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সুজিত রায় নন্দী ও আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

তেল-গ্যাস, খনিজসম্পাদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির নেতাদের উদেশে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, দেশের জাতীয় সম্পাদ নিয়ে উদ্বেগ-উৎকন্ঠা থাকা ভালো। তবে বেশি উদ্বেগ-উৎকন্ঠা নানা প্রশ্নের জম্ম দেয়।

তাদের উদ্দেশে ড. হাছান বলেন, ‘ আপনাদের কোন বক্তব্য থাকলে সরকারের কাছে উপস্থাপন করেন। কিন্তু যারা জঙ্গিবাদী রাষ্ট্র বানিয়ে দেশকে অকার্যকর রাষ্ট্র বানাতে চায়, তাদের হাতকে শক্তিশালী করবেন না।’

রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র সম্পর্কে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্যকে মিথ্যা ও মনগড়া উল্লেখ করে তিনি বলেন, রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে সুন্দরবনের দুরত্ব ১৪ কিলো মিটার। আর ইউনেস্কো ঘোষিত ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ থেকে এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের দুরত্ব ৭০ কিলোমিটার এবং হিরণপয়েন্ট থেকে দুরত্ব ৯৭ কিলোমিটার।

তিনি বলেন, এ বিদ্যুত প্রকল্পের জন্য যেমন কৃষি জমি ধ্বংস করা হয়নি তেমনি কোন বসতবাড়ীও উচ্ছেদ করা হয় নি।

তিনি বলেন, স্বল্পশিক্ষিত বেগম খালেদা জিয়া যেভাবে বিশেষজ্ঞের মতো মতামত প্রদান করেছেন তাতে দেশের মানুষের মতো আমরাও আতঙ্কিত। কেননা তিনি জাতিকে বিভ্রান্ত করার জন্য ভুল তথ্য উপস্থাপন করেছেন।

ড. হাছান মাহমুদ এ সময় ছবি ও তথ্য উপস্থাপনের মাধ্যমে কয়লা পরিবহন, বিভিন্ন রাসায়নিক দ্রব্যের সৃষ্ট অপসারণ, পশুর নদীর পানির উষ্ণতা, বায়ু প্রবাহ, শব্দ প্রবাহ নিয়ে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার দেওয়া তথ্যের অসারতা তুলে ধরেন।

এ সময় তিনি যে কোন বিষয়ে পরামর্শ দেওয়ার আগে সে বিষয়ে ভালভাবে জানার জন্য বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টাদের প্রতি আহবান জানান।