Press "Enter" to skip to content

ন্যাটো পরিকল্পনার বিরোধিতার হুমকি তুরস্কের

কুর্দিশ যোদ্ধাদের সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে স্বীকৃতি না দিলে বাল্টিক দেশগুলোকে সুরক্ষায় ন্যাটো পরিকল্পনার বিরোধিতা করার হুমকি দিয়েছে তুরস্ক।

লন্ডনে এই সামরিকের জোটে সম্মেলনকে সামনে রেখে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান মঙ্গলবার এমন হুমকি দিয়েছেন। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

ইতিহাসের সবচেয়ে সফল একটি সামরিক জোট হিসেবে প্রশংসিত ন্যাটোর জন্য এই হুমকি বাড়তি চ্যালেঞ্জ তৈরি করবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

কেবল তা-ই না, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পসহ জোটের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনে লন্ডনে জড়ো হওয়া জোটের নেতাদের চ্যালেঞ্জও এতে বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

তুরস্কের এই স্পর্ধা ন্যাটোর রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে নতুন করে সন্দেহ যোগ করবে। ন্যাটোর মগজ অকেজে হয়ে পড়েছে বলে ইতিমধ্যে মন্তব্য করে বসেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রন।

এছাড়াও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পশ্চিমাদের রক্ষায় তার পরাশক্তির সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রশ্ন করায় এই জোটের ভিত্তি আরও ক্ষুণ্ণ হয়েছে।

রুশ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয়ের পর থেকে জোটের সঙ্গে এরদোগানের সম্পর্কের টানাপোড়েন চলছে। কাজেই উত্তর সিরিয়ায় কুর্দিশ যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে তুরস্কের লড়াইয়ে সমর্থন না বাড়ালে বাল্টিক ও পোলান্ডের সুরক্ষায় জোটের পরিকল্পনা আটকে দেয়ার হুমকি দিয়েছে তুরস্ক।

ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে আংকারা থেকে রওনা দেয়ার আগে এরদোগান বলেন, আনন্দের সঙ্গেই আমরা একসঙ্গে কাজ শুরু ও এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারবো।

তিনি জানান, যাদের আমরা সন্ত্রাসী সংগঠন বলে মনে করি–আমাদের মিত্ররা যদি তাদের একইভাবে মূল্যায়ন না করে– তাহলে আমরা সেখানে নেয়া যে কোনো পদক্ষেপের বিরুদ্ধে দাঁড়াব।

পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট অ্যান্ডারজেস ডুডার সঙ্গে ফোনে কথা হওয়ার জানিয়ে তুরস্কের এই নেতা বলেন, তারা বৈঠকে বসার ব্যাপারে একমত হয়েছেন। এছাড়া বাল্টিক দেশগুলোর নেতাদের সঙ্গে বসার কথাও তিনি জানান।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মার্ক এসপার আংকারাকে হুশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, তারা যেটাকে হুমকি হিসেবে দেখছে, সবাই সেটাকে হুমকি নাও ভাবতে পারেন। ঐক্যের স্বার্থে বাল্টিক পরিকল্পনা আটকে দেয়ার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারে তুরস্কের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

ন্যাটো চুক্তির কেন্দ্রবিন্দুতে পারস্পরিক প্রতিরক্ষা অনুচ্ছেদের কথা উল্লেখ করে জোটের সেক্রেটারি জেনস স্টলটেনবার্গ জোর দেন যে পোল্যান্ড কিংবা বাল্টিক দেশগুলো আক্রান্ত হলে তার জবাব দেয়া হবে।

শেয়ার অপশন: