ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:৪৩ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সড়ক দুর্ঘটনা

নোয়াখালী ও সাভারে সড়কে নিহত ৬

নোয়াখালীর সেনবাগে অটোরিকশা ও মালবাহী পিকআপের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন এবং ঢাকার সাভারে পিকআপভ্যান ও ট্রাকের সংঘর্ষে প্রকৌশলীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন।

নোয়াখালী:

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় যাত্রীবাহী সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মালবাহী পিকআপের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অটোরিকশাচালকসহ তিনজন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন।

সোমবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের সেনবাগ রাস্তার মাথা এলাকায় করিমখানের বাড়ির দরজায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হচ্ছেন- সেনবাগ উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের উত্তর রাজারামপুর গ্রামের ইমাম উদ্দিনের স্ত্রী ফিরোজা খানম রত্না (৫৮), তার ছেলে মোহন খান (৩০) ও দক্ষিণ মোহাম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং অটোরিকশাচালক আবু তাহের (২৭)।

আহতরা হচ্ছেন- নিহত মোহন খানের স্ত্রী বিবি মর্জিনা আক্তার (২৬), তার ছেলে মিরাজ খান (৭) ও পিকআপ যাত্রী সাতবাড়িয়া গ্রামের সফি উর‌্যার ছেলে মো. মাসুদ (৩৫)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকালে শ্বশুরবাড়ি সেনবাগ উপজেলার ছমির মুন্সীরহাট থেকে অটোরিকশাযোগে বাড়ি ফিরছিলেন মোহন খান ও তার পরিবারের লোকজন। পথে ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের সেনবাগ রাস্তার মাথা এলাকায় পৌঁছলে ফেনী থেকে ছেড়ে আসা একটি মালবাহী পিকআপভ্যান অটোরিকশাকে সামনে থেকে চাপা দেয়।

এতে ঘটনাস্থলে অটোচালকসহ পাঁচজন ও পিকআপের এক যাত্রী আহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে অটোযাত্রী মোহন খান, ফিরোজা খানম রত্না ও অটোচালক আবু তাহেরের মৃত্যু হয়।

 

সাভার:

ঢাকার সাভারে পিকআপভ্যান ও ট্রাকের সংঘর্ষে প্রকৌশলীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন।

সোমবার সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের বলিয়ারপুর এসএন সিএনজি পাম্পের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মীর আখতার গ্রুপের প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম (৫৫)। তার বাড়ি সিরাজঞ্জের খোকসা ইউনিয়নের ব্রাহ্মাণবাড়িয়া এলাকায়, একই এলাকার নুরুন্নবী এবং চালক খলিলুর রহমানের (৬৫) বাড়ি ময়মনসিংহে বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, সকালে মীর আখতার গ্রুপের (নম্বর- ঢাকা মেট্রো-ট-১১-৮৭৮৪) পিকআপে সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকায় ফিরছিলেন ওই তিনজন। পিকআপটি ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের বলিয়ারপুর এসএন সিএনজি পাম্পের সামনে পৌঁছালে সামনে থেকে উল্টো পথে আসা দ্রুতগতির একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে পিকআপভ্যানটি দুমড়েমুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই মীর আখতার গ্রুপের প্রকৌশলী জহুরুল ইসলামসহ তিনজন মারা যান।

নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত গাড়িটি আটক করা হয়েছে। দুর্ঘটনায় জড়িত চালক বা ট্রাককে আটক করতে পারেনি পুলিশ।