ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:৫০ ঢাকা, শুক্রবার  ২০শে এপ্রিল ২০১৮ ইং

নাসরীন সুলতানা মুন্নি

নেত্রী মুন্নি-এর বিরুদ্ধে ‘রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তারের’ অভিযোগ

কে এম সবুজ, ঝালকাঠি ॥

ঝালকাঠির জেলা পরিষদ সদস্য তথা রাজাপুর আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা ও যুব মহিলা লীগ সভাপতি ‘নাসরীন সুলতানা মুন্নির‘ বিরুদ্ধে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে বিরোধীয় সম্পত্তিতে জোর করে পাকা স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রাজাপুর উপজেলার টিএন্ডটি কার্যালয়ের পেছনের ওই জমিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকাসত্ত্বেও রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে মুন্নি কাজ শুরু করেছেন। জমির আরেক অংশিদার শিক্ষক নজরুল ইসলাম চাঁন গতকাল শনিবার সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন। ওই শিক্ষকের অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, পশ্চিম রাজাপুর ইসলামিয়া সারকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম চাঁন পৈত্রিক ও ক্রয় সূত্রে আদালতের ডিগ্রি মূলে মালিকানায় টিএন্ডটি কার্যালয়ের পেছনের ৪৯৪৬ দাগের ৩৫ শতাংশ জমি দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে আসছেন। পরবর্তীতে একই এলাকার নাসরীন সুলতানা মুন্নি ওই একই দাগে কিছু জমি ক্রয় করেন।

এরপর সিমানা নির্ধারণ নিয়ে বিরোধের সৃস্টি হলে উভয় পক্ষ আদালতে দেওয়ানী মামলা করে। আদালত উভয় পক্ষকে শুনানী না হওয়া পর্যন্ত ওই জমিতে স্থিতাঅবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন।

বর্তমানে মুন্নি ওই জমিতে জোরপূবর্ক পাকা দালান নির্মাণের কাজ শুরু করলে শিক্ষক নজরুল ইসলাম আদালতে বন্টন মামলা করেন। আদালত বিগত ২৮ মে কেন স্থিতাঅবস্থা জারী করা হবেনা মর্মে একটি নোটিশ জারী করে ১০ দিনের মধ্যে মুন্নিকে এর জবাব দিতে বলেন। নোটিশ প্রাপ্তির পর আদালতের নির্দেশকে অমান্য করে আরো বেশি শ্রমিক দিয়ে দ্রুত নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন মুন্নি।

এ ব্যাপারে নাসরীন সুলতানা মুন্নি বলেন, আদালতের নোটিশে কাজ বন্ধের কোনো আদেশ এখোনো দেওয়া হয়নি। এছাড়া যে জমিতে নির্মাণ কাজ চলছে তা আমার অংশের মধ্যে রয়েছে এ নিয়ে অভিযোগকারীর দাবী অযৌক্তিক।

 

আরো পড়ুন 

এতিম, মুক্তিযোদ্ধা ও আলেম-উলামার সম্মানে প্রধানমন্ত্রীর ইফতার

মসজিদ নির্মাণ শ্রমিকের ভূমিকায় মন্ত্রী !!