Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:১৩ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

আদালতের নির্দেশের পরে নূর হোসেন

নূর হোসেনের মুখে হাসি কেন?

nur4

আদালতে তোলার আগে নূর হোসেন

শুক্রবার  দুপুর তখন আড়াইটার ঘরে। বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট, হ্যালমেট আর সাদা নীলের চেক ফুল টি-শার্ট পরিহিত নূর হোসেনকে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে পুলিশ বেষ্টনীতে নারায়ণগঞ্জ আদালতে নামানো হয়। সংবাদকর্মীদের ভীড় ঠেলে এজলাসের কাছাকাছি যেতেই নিহতের পরিবার ও তাদের স্বজনরা জুতা হাতে নূরের ফাঁসির দাবিতে স্লোগান দিচ্ছিলেন। এরই মধ্যে কেউ একজন জুতা ছুঁড়ে মারেন নূর হোসেনের দিকে।
একই সঙ্গে উৎসুক লোকজন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের চাপে এক পর্যায়ে ‘ও মা’ বলে চিৎকার করে উঠেন নূর হোসেন। এ সময় তাকে বেশ বিমর্ষই দেখাচ্ছিল, চোখে মুখে ছিল উদ্বেগের স্পষ্ট ছাপ।
এরই মধ্যে দুপুর ২টা ৪৭ মিনিটে নারায়ণগঞ্জ চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সহিদুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হলে ম্যাজিস্ট্রেট তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
আদালতের নির্দেশের পরক্ষণেই পাল্টে যায় নূর হোসেনের মুখ। তখন হাসি ফুটে উঠে নূর হোসেনের মুখে। যেন এমন কোনো আদেশেরই অপেক্ষায় ছিলেন তিনি। কাঠগড়া থেকে নামানোর পর হাসি মুখে ফুরফুরে মেজাজেই পুলিশ বেষ্টনীর মধ্যে আদালত ত্যাগ করেন আলোচিত এই মামলার প্রধান আসামি।