ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:৩৫ ঢাকা, বুধবার  ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

‘নিহত জঙ্গিদের বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা ছিলো’

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল ইসলাম বলেছেন, রাজধানীর কল্যাণপুরের জঙ্গিদের বড় ধরনের হামলার পরিকল্পনা ছিলো। কিন্তু আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের ওই পরিকল্পনা নস্যাৎ করে দিয়েছে।

আইজিপি কল্যাণপুরের যৌথ অভিযান শেষে আজ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তাদের বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা ছিলো।

তিনি বলেন, কল্যাণপুরের জাহাজ বিল্ডিং নামে একটি ৫-তলা আবাসিক ভবনের দ্বিতীয় তলায় সন্ত্রাসীদের গোপন আস্তানায় নিরাপত্তা বাহিনীর রাতভর অভিযানে ৯ জঙ্গি নিহত ও একজন গুলিবিদ্ধ হয়। এখানে তদন্তে প্রাপ্ত জিনিসপত্র ও নমুনার সঙ্গে গুলশানে হামলাকারীদের মিল পাওয়া গেছে। তারা জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য হতে পারে।

তিনি বলেন, নিহত জঙ্গিদের পাগড়ী, পোশাক ও ব্যবহার্য জিনিসপত্র দেখে মনে হয় তাদের সঙ্গে গুলশান হামলাকারীদের সম্পৃক্ততা রয়েছে।
সন্ত্রাসীরা ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিসান বেকারিতে হামলা করে ১৭ জন বিদেশীসহ ২০ জিম্মিকে হত্যা করে। এ ঘটনায় দু’জন পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হন।

এরপর ৭ জুলাই সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতের কাছে একটি পুলিশ চেক পোস্টে হামলা চালিয়ে দুই পুলিশ সদস্য ও একজন মহিলাকে হত্যা করে।

আইজিপি এর আগে বলেছেন যে, তদন্তকারীরা গুলশান ও শোলাকিয়ায় ব্যবহৃত অস্ত্রের উৎস খুঁজে পেয়েছে। এসব অস্ত্র খুব আধুনিক নয় এবং এগুলোর সব প্রায় একই ধরনের। জঙ্গিদের হোতা ও তাদের সহায়তাকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।