ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:০৬ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘নির্বাচন কর্মকর্তাকে পেটালেন এমপি’

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামকে কিল-ঘুষিসহ মারপিট করেছেন আওয়ামী লীগ এমপি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী।

তিনটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নিজের পছন্দ মতো কর্মকর্তাদের নির্বাচনী দায়িত্ব না দেয়ায় এ ঘটনা ঘটান এমপি।

বুধবার বেলা ২টার দিকে বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচন অফিসে এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেন একাধিক নির্বাচন কর্মকর্তা।

আহত নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুলকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, বাঁশখালী পৌরসভা নির্বাচনে জাল ভোট দেয়া ব্যালট পেপার গ্রহণ না করাকে কেন্দ্র করে এমপি মোস্তাফিজুর ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুজ্জামানের সঙ্গে বিরোধ ছিল জাহিদুল ইসলামের।

এর মধ্যে ষষ্ঠ ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ইউপি নির্বাচনে এমপি মোস্তাফিজুরের কথামতো পছন্দের কর্মকর্তাদের নির্বাচনী দায়িত্ব দিতে অস্বীকার করেন নির্বাচন কর্মকর্মা জাহিদুল। এমপির সমর্থকদের ভোটকেন্দ্রে এজেন্ট হিসেবেও নিয়োগ দিতে রাজি হননি তিনি।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার দুপুর ২টার দিকে কথা কাটাকাটির জের ধরে উপজেলা পরিষদে নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুলকে তার কার্যালয়েই মারধর করেন এমপি মোস্তাফিজুর।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এমপি প্রথমে নির্বাচন কর্মকর্তার শার্টের কলার ধরে তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি শুরু করেন। এক পর্যায়ে তাকে কিলঘুষি মারতে শুরু করেন। এ সময় সঙ্গে থাকা এমপির অনুসারীরা মারধরে যোগ দেন। তারা তাকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করেন।

মারপিট করে সঙ্গীদের নিয়ে এমপি চলে গেলে নির্বাচন কার্যালয়ের কর্মকর্তারা জাহিদুলকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

জাহিদুলকে মারধরের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আব্দুল বাতেন। তিনি জানান,  এমপি মোস্তাফিজুর রহমান ও তার অনুসারীরা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছেন। এ ব্যাপারে ঢাকার নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জমা দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ঘটনার ব্যাপারে জানতে যোগাযোগ করলে নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুলকে মারধরের কথা অস্বীকার করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুজ্জামান। তিনি দাবি করেন, এমপির সঙ্গে জাহিদুলের কথা কাটাকাটি হয়েছে।

এদিকে এমপির সঙ্গে যোগাযোগ করতে তার মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করলেও তিনি ফোন ধরেননি। এ খবর যুগান্তরের।