ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১১:০৭ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

নির্বাচন কমিশনের নতজানু ভূমিকার জন্য ছি ছি করছে মানুষ : রিজভী

নতজানু ভূমিকার জন্য ছি ছি করছে মানুষ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। একই সঙ্গে তিনি অভিযোগ করে বলেন, পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আচরণবিধি লঙ্ঘনসহ অসংখ্য অভিযোগ নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হয়। কিন্তু নির্বাচন কমিশন নির্বিকার ও নিশ্চুপ থাকে। এই নির্বাচন কমিশন একটি নিষ্ক্রিয় ডাকঘরে পরিণত হয়েছে।
শনিবার সকালে নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক কাজী আসাদ সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
তিনি বলেন, আসন্ন পৌর নির্বাচনে বজ্জাত, খুনী, বদমায়েশ, দাম্ভিক, ক্ষমতাদর্পী ও দাগী অপরাধীদের অপতৎপরতা অগ্রাহ্য করে নির্বাচনের দিন ভোট প্রদান করতে হবে। ফলাফল ঘোষণা না হওয়া পর্যন্ত ভোটকেন্দ্র পাহারা দিতে হবে।
রিজভী বলেন, জোর করে, শক্তি প্রয়োগ করে ক্ষমতা ধরে রাখা যায়, কিন্তু মানুষের বিচার-বুদ্ধিকে বেঁধে রাখা যায় না। মানুষ সবকিছুই দেখতে পাচ্ছে, উপলব্ধি করছে।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পর শাসকদলের বেআইনি গুম-খুনের কর্মসূচি বর্তমানে অপহরণ, ক্রসফায়ার আর বন্দুকযুদ্ধের নামে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের মহাউৎসবে পরিণত করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, যেকোনো বিরোধিতা ও সমালোচনা দমন করতে সরকার এখন ফেরাউনের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।
রিজভী আরও বলেন, ২০১১ সালে দেশব্যাপী পৌর নির্বাচন ও ২০১৩ সালে ৫টি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সশব্দ পরাজয়ের গ্লানি মেটাতে গিয়ে পরবর্তী সময়ে সব নির্বাচনে বন্দুক, গুম, ককটেল ও বোমার ওপর নির্ভর করছে। দেশের মানুষের কাছ থেকে ক্রমাগত বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার জন্য তাদের যে নির্মম পরাজয় হয়েছে সেটি তারা কখনোই বিশ্বাস করতে চায় না। তাই এখন নির্বাচনগুলোয় দখলদারিত্ব বজায় রাখছে।
তবে সব ভয়ভীতি উপেক্ষা করে নির্বাচনের দিন নেতাকর্মীদের কেন্দ্র পাহারা দেয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব।
তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র পক্ষ থেকে নড়াইলে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা দায়েরে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানাচ্ছি।
পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী বিরোধী দলীয় নেতাকর্মী যারা আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন তাদের সুস্থতা কামনা এবং গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন তিনি।
রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবুল হক হানিফ বলেছেন যে, নির্বাচন কমিশন বিএনপিকে বেশি সুবিধা দিচ্ছে। তার এই বক্তব্যকে বছরের শ্রেষ্ঠ আলোচিত তামাশা ছাড়া মানুষ অন্য কিছু ভাবতে পারছে না। তার এই বক্তব্যে মনে হয়- ধানক্ষেত বা ধানের গোলার নিরাপত্তাহীনতায় উদ্বিগ্ন হয়ে মূষিক (ইঁদুর) বিলাপ করছে গৃহস্থের কাছে।
তিনি বলেন, ‘যদি হানিফ সাহেবের কথা সত্য হয় তাহলে ঢাকা থেকে পৌর নির্বাচনী এলাকায় শাসকদলের প্রার্থীর পক্ষে শীর্ষ সন্ত্রাসীদের পাঠাচ্ছে কারা?
বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব বলেন, সরকারি দুঃশাসনে সৃষ্ট সকল চড়াই-উৎরাই অতিক্রম করে আগামী ৩০ ডিসেম্বরের পৌর নির্বাচনকে সফল করতে হবে।