ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:২২ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যানঃ সরকার ও ইসি’র পদত্যাগ চায় বিএনপি

পৌর নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পদত্যাগ চেয়েছে বিএনপি। বৃহস্পতিবার গুলশানে চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এমন দাবি করেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, ক্ষমতাসীনদের এবং এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোন নির্বাচনই সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না। পৌর নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সেটি আবারও প্রমাণিত হল।
তিনি বলেন, জনগণ নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারেনি। কেন্দ্র দখল, জাল ভোট, ব্যালট ছিনিয়ে নিয়ে সিল মারা, দলীয় নেতাকর্মীসহ সাধারণ ভোটারদেরকে ভোট কেন্দ্রে যেতে বাধাপ্রদান করা হয়েছে। সরকার বিরোধী পক্ষের প্রার্থীদের এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। তাই এই ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছে বিএনপি।
বিএনপির সেনা মোতায়েনের দাবি মানা হয়নি উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, সাংবিধানিক দায়িত্ব পালনে নির্বাচন কমিশন চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে এই কমিশন চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। অবিলম্বে তাদের পদত্যাগ করা উচিৎ।
মির্জা ফখরুল বলেন, ভীতিকর পরিবেশ তৈরির মাধ্যমে প্রশাসনিক চাপ সৃষ্টি করে বিএনপি প্রার্থীদের বিজয় নৎসাত করা হয়েছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে বিজয়ী প্রার্থীকে পরাজিত করানোর জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তাদের ওপর মারাত্মক চাপ তৈরি করা হয়েছে।
তিনি বলেন, প্রমাণ হয়েছে বর্তমান সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোন নির্বাচনই সুষ্ঠু হবে না।
পৌর নির্বাচনের অনিয়ম তুলে ধরে ফখরুল বলেন, বিএনপি ও ২০ দলীয় জোট পৌর নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখান করেছে এইকসঙ্গে জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার সঙ্গে প্রতারণা করা এবং সাংবিধানিক দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার জন্য নির্বাচন কমিশন ও সরকারের পদত্যাগ দাবি করছি।
বর্তমান সরকারকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপÍ মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকারের কোনো বৈধতা নেই। বিরোধী দলের ওপর সীমাহীন নির্যাতন চালানো হচ্ছে। দেশকে একদলীয় শাসনের দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।
পৌর নির্বাচনের অনিয়ম নিয়ে বিএনপি কোনো কর্মসূচি দেবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, এটা পরবর্তীতে জানানো হবে।
গণমাধ্যম কর্মীদের দায়িত্ব পালন ও দলীয় নেতাকর্মীদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার জন্য মির্জা ফখরুল আন্তরিক ধন্যবাদ জানান এবং নির্বাচনে নিহতদের পরিবারের প্রতি শোক ও আহতদের সুস্থতা কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, যুগ্ম মহাসচিব শাহজাহান, আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজজামান রিপন, যুব বিষয়ক সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খাইরুল কবির খোকন, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শিরিন শারমিন সুলতানা প্রমুখ।