ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:৫৮ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

নির্বাচনী সহিংসতায় গুলি ও সংঘর্ষে শিশুসহ তিনজনের প্রানহানি

ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় যশোর জেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের আড়পাড়া, ঢাকার কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ইউনিয়ন,জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়নে শিশুসহ তিনজন গুলি ও সংঘর্ষে দুপুর সোয়া ১২টা নাগাদ নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

যশোর জেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের আড়পাড়া স্কুল কেন্দ্রের বাইরে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে হাসান আলী (৩০) নামের এক আওয়ামী লীগকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তিনি ইউনিয়নের শাহপুর গ্রামের হারেজ আলীর ছেলে। পরে তাকে যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের চিকিৎসক আবদুল্লাহ আল মামুন জানিয়েছেন, হাসান আলীর শরীরে ৩টি গুলি লেগেছে। তবে তিনি আশংকামুক্ত।

রাজধানী ঢাকার অদূর কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্রে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির মধ্যে পড়ে এক শিশু নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ১০ দিকে ইউনিয়নের মধুরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।নিহত শহিদুল ইসলাম শুভ ঢালিকান্দি গ্রামের আলাল মোল্যার ছেলে। এ ঘটনায় আরও দু’জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। পরে ওই কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আয়নালের নেতৃত্বে ২০/৩০ জন ওই কেন্দ্রে গিয়ে জালভোট দেয়ার চেষ্টা করে। প্রতিপক্ষ বিএনপির লোকজন তাদের বাধা দিলে সংঘর্ষ শুরু হয়। এ সময় উভয়পক্ষের গোলাগুলির মধ্যে পড়ে শিশু শহিদুলসহ ৩ জন গুলিবিদ্ধ হন। প্রথমে তাদের স্থানীয় মডার্ন হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে শিশু শহিদুলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মৃত্যু হয়। এদিকে সংঘর্ষের পর ভোটাররা আতংকে ওই ভোট কেন্দ্র ছেড়ে চলে যায়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ-বিজিবি ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে রফিকুল ইসলাম (৫০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে উত্তর বালুরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। তবে মেলান্দহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসিমুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের ধাক্কাধাক্কির সময় রফিকুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ধরে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তিনি ‘হার্ট অ্যাটাকে’ (হৃদরোগে) মারা যান।