শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১:৩৮ ঢাকা, রবিবার  ১৬ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

নিখোঁজ পাইলটের সন্ধান মেলেনি, বিধ্বস্ত বিমানের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার

বঙ্গোপসাগরে বিমান বাহিনীর বিধ্বস্ত বিমানের কিছু ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পাওয়া গেলেও পাননি উদ্ধারকারীরা। তার খোঁজে নৌযান ও হেলিকপ্টার নিয়ে আকাশ থেকে দিনভর অভিযান অব্যাহত রাখা হয়।

পতেঙ্গাস্থ বিমান বাহিনীর জহুরুল হক ঘাঁটি থেকে জানানো হয়, নিখোঁজ পাইলটের নাম তাহমিদ। তার বাড়ি আনোয়ারা উপজেলায়।

সোমবার সকাল ১১টায় তিনি নিয়মিত প্রশিক্ষণ মিশনে এফ-৭ ফাইটার বিমানটি নিয়ে জহুরুল হক ঘাঁটি থেকে উড্ডয়ন করেন। উড্ডয়নের প্রায় ১৫ মিনিট পর পাইলটের সাথে ঘাঁটির নিয়ন্ত্রণ কক্ষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তার পনের মিনিট পর সকাল সাড়ে ১১টায় ফাইটার বিমানটি পতেঙ্গা সমুদ্র উপকূলের কাছে সাগরের পানিতে বিধ্বস্ত হয়। উপকূলীয় জেলেরা জানান, চোখের পলকে বিমানটিকে তারা পানিতে আছড়ে পড়তে দেখেন।

ফাইটার এফ- ৭ বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়ার পরপরই বিমান বাহিনীর উদ্ধারকারী দল ২টি হেলিকপ্টার নিয়ে দুর্ঘটনাস্থল ও আশেপাশে তল্লাশি অভিযান শুরু করে।

চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ব্যবস্থাপক উইং কমান্ডার নূরে আলম বলেন, ‘ রোববার সকালে বিমান বাহিনীর ফাইটার এফ-৭ বিমানটি পতেঙ্গা সমুদ্র উপকূল থেকে ৬ নটিক্যাল মাইল দূরে বঙ্গোপসাগরের পানিতে বিধ্বস্ত হয়েছে।’ তিনি জানান, বিমান বাহিনী, নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড এবং চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের উদ্ধারকারীরা উদ্ধার অভিযানে নামে। তবে বিমানের কিছু ধ্বংসাবশেষ ছাড়া  গতকাল বিকাল পর্যন্ত পাইলটের সন্ধান মেলেনি।