Press "Enter" to skip to content

নিউ ইয়র্কের পথে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইরান-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চরম উত্তেজনার মধ্যেই জাতিসংঘের সাধারন অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্কের পথে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। শুক্রবার সকালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

গত শনিবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা চালানো হয়। ওই হামলার পর সৌদি আরবের তেল উৎপাদন অর্ধেকে নেমে আসে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এ হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেন। এদিকে হামলার পর ইরান সমর্থিত ইয়েমেনের শিয়া সশস্ত্র গোষ্ঠী হুতিরা দায় স্বীকার করলেও যুক্তরাষ্ট্র এ হামলার পেছনে ইরানকে দায়ী করে আসছে। প্রথম থেকেই ইরান এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ইরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যাপারে ঘোষণা আসবে। সামরিক অভিযান চালানো হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, সব পথই খোলা রয়েছে। তিনি বলেন, ‘চূড়ান্ত পদক্ষেপের সম্ভাবনা তো আছেই। তার আগেও অনেক কিছু করার আছে।’ চূড়ান্ত পদক্ষেপ বলতে তিনি যুদ্ধকে বুঝিয়েছেন বলে জানান।

অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রকে আনুষ্ঠানিকভাবে হুঁশিয়ারি দিয়ে ইরান জানায়, কোনো সামরিক আগ্রাসন চালানোর চেষ্টা করলে তাৎক্ষণিকভাবে পাল্টা জবাবের মুখে পড়তে হবে তাদের।

আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্কে বসবে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশন। সেখানে বৈঠকে বসবেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতারা। ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানিও ওই সম্মেলনে অংশ নেবেন।

শেয়ার অপশন: