ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:৫১ ঢাকা, সোমবার  ১৬ই জুলাই ২০১৮ ইং

কুপিয়েছে
নমুনা ফটো

নলছিটিতে আ’লীগ নেতাসহ দুইজনকে কুপিয়েছে

ঝালকাঠি প্রতিনিধি ॥  প্রতিবেশীর মামলা পরিচালনায় সহায়তার অভিযোগে ঝালকাঠির নলছিটিতে এক প্রবীন আওয়ামী লীগনেতাসহ দুইজনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম/আহত করেছে পারিবারিক প্রতিপক্ষরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার হদুয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় রানাপাশা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য খলিলুর রহমান আকন (৬৬) ও কাঞ্চন ফকিরকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানাযায়, রানাপাশা ইউনিয়নের হদুয়া গ্রামের সুলতান ফকিরের সঙ্গে প্রতিবেশী কামাল ফকিরের ৮৮ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। ২০১২ সালে জমি নিয়ে কামাল ফকির বাদী হয়ে আদালতে একটি মামলাও করেছেন। দীর্ঘ দিনধরে এই মামলা পরিচালনায় সহযোগিতা করছেন আওয়ামী লীগনেতা খলিলুর রহমান আকন। এতে ক্ষিপ্ত ছিল প্রতিপক্ষ সুলতান ফকির ও তার পরিবারের লোকজন। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশের মাঠে গরু আনতে যান খলিলুর রহমান আকন। এসময় পূর্ব থেকে অপেক্ষমান সুলতান ফকির, জাকির ফকির, আলতাফ ফকির, খালেক ফকির, মালেক ফকির ও রুবেল লাঠিসোটা ও রামদা দিয়ে পিটিয়ে এবং কুপিয়ে খলিলুর রহমানকে জখম/আহত করে। তাঁর চিৎকার শুনে বাঁচাতে স্থানীয় কাঞ্চন ফকির ছুটে আসলে তাকেও মারধর করা হয়।

আহত খলিলুর রহমান আকন অভিযোগ করে বলেন, আমি ২০১২ সাল থেকে কামাল ফকিরদের মামলাটি পরিচালনায় সহযোগিতা করছি। যার কারণে প্রতিপক্ষ সুলতান ফকির ও তার সহযোগিরা ৮৮ শতাংশ জমি দখল করতে পারছেন না। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। আমার মাথায়, হাতে এবং শরীরের বিভিন্নস্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে।

নলছিটি থানার ওসি এ কে এম সুলতান মাহামুদ বলেন, আহত অবস্থায় খলিলুর রহমান থানায় এসেছিলেন, আমরা তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে, তবে কাউকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

ঘটনার পর থেকে হামলাকারীরা পালিয়ে থাকায় কোনভাবেই অভিযুক্তদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।