ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১:১৯ ঢাকা, বুধবার  ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

খালেদা জিয়া ও মোহাম্মদ নাসিম
বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

‘ধূম্রজাল তৈরি করতে চান খালেদা জিয়া’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচন কমিশন গঠনে আলোচনার নামে ধূম্রজাল তৈরি করতে চান।

তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচন কমিশন গঠনে আলোচনার নামে ধূম্রজাল তৈরি করতে চান। তিনি পরিস্থিতি ঘোলাটে করতেই এ ধরনের প্রস্তাব দিয়েছেন।’

কেন্দ্রীয় ১৪-দলের মুখপাত্র নাসিম বলেন, রাষ্ট্রপতি সকল নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলকে ডাকবেন এবং তাদের সাথে আলোচনা করেই সার্চ কমিটি গঠন করবেন।

মোহাম্মদ নাসিম আজ দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সর্বশেষ রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় ১৪-দলের বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ (একাংশের) সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তার, তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের সভাপতি ড. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ (একাংশের) সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন এবং বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনসহ কেন্দ্রীয় ১৪-দলের অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, যারা জনগনকে ভয় পায় তারাই অন্য পথে ক্ষমতা দখলের চেষ্ঠা করে। বেগম খালেদা জিয়া অপ্রাসঙ্গিকভাবে নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন ও তাদের বিচারিক ক্ষমতা দেয়ার প্রস্তাব করে ধূম্রজাল তৈরি করতে চেয়েছেন।

তিনি বলেন, বিএনপি সেনাবাহিনীকে বিতর্কিত করার জন্যই নির্বাচন কমিশন গঠনে এ ধরনের প্রস্তাব দিয়েছে। কারণ নির্বাচনকে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য কাদের নিয়োগ দেয়া হবে সে বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।

এ বিষয়ে তিনি আরো বলেন, সংবিধান অনুযায়ী দেশে নির্বাচন হবে। দেশের জনগণ যে রায় দেবে তা তারা মেনে নেবেন।

ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নাসিরনগর ও গাইবান্ধায় সংখ্যালঘু এবং ক্ষুদ্র নৃজাতি গোষ্ঠীর ওপর হামলার বিষয়ে নাসিম বলেন, কেন্দ্রীয় ১৪-দলের নেতারা নাসিরনগর ও গাইবন্ধায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এবং ক্ষতিগ্রস্থদের সাথে কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার জন্য একটি বিশেষ মহল পরিকল্পিতভাবে এ সকল ঘটনা ঘটিয়েছে। কেন্দ্রীয় ১৪-দেশের মানুষকে সঙ্গে নিয়ে এ ধরনের ষড়যন্ত্র রুখতে পারবে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে নাসিম বলেন, কেন্দ্রীয় ১৪ দল আদর্শিক জোট। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের প্রার্থী হিসেবে সেলিনা হায়াত আইভীকে বিজয়ী করতে কাজ করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তিনি এ বিষয়ে বলেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের একজন প্রার্থী রয়েছে। কেন্দ্রীয় ১৪ দল একক প্রার্থী রাখার জন্য আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ ও ড. আব্দুর রাজ্জাককে নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের সাথে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তার কাজ করবেন।