Press "Enter" to skip to content

‘ধর্ষিতার’ বিয়ে থানায়, ওসি ক্লোজ-এসআই সাসপেন্ড

গণ ধর্ষণের শিকার নারীর সঙ্গে ধর্ষকদের একজনের বিয়ে দেওয়ার ঘটনায় পাবনা সদর থানার ওসি ওবায়দুল হককে প্রত্যাহার করা হয়েছে। ওই ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে একজন উপ-পরিদর্শকে (এসআই) সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে অপরাধীকে রক্ষা করতে থানায় এই বিয়ের আয়োজন করেছিলেন তারা।

পাবনার পুলিশ সুপার (এসপি) রফিকুল ইসলাম আজ সকালে সংবাদ সম্মেলন করে এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বিয়ে আয়োজনে অভিযুক্ত ওসি ওবায়দুলকে ক্লোজ করে পুলিশ লাইনে যুক্ত করা হয়েছে। এই বিয়ে দেওয়ার জন্য থানায় জোর করে কাজী ডেকে আনায় এসআই একরামুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

গত ৫ সেপ্টেম্বর তিন সন্তানের মা বিবাহিত ভিকটিমের সঙ্গে ধর্ষণে অভিযুক্তদের একজনের বিয়ের আয়োজন করেছিলেন পাবনা সদর থানার ওসি। ভিকটিমের ভাইয়ের অভিযোগ, তার বোন বিবাহিত জানার পরও জোর করে তাকে তালাকের কাগজপত্রে সই করিয়েছিলেন ওসি।

এই ঘটনার কথা গণমাধ্যমে প্রকাশের পর বিষয়টি তদন্তের জন্য গত সোমবার তিন সদস্যের একটি কমিটি করেছিল জেলা পুলিশ।

শেয়ার অপশন:
Don`t copy text!