Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:৩০ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

দোষ স্বীকার না করলেও ভ্রাম্যমাণ আদালতে শাস্তি

মোবাইল কোর্ট (সংশোধন আইন)-২০১৫ এর খসড়া ভেটিং সাপেক্ষে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।
এর ফলে দোষ স্বীকার না করলেও সাক্ষী ও পারিপার্শ্বিক অবস্থার ভিত্তিতে বিচার কাজ পরিচালনা করতে পারবেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকে বাংলাদেশ শিল্প প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ আইন ২০১৫ এর খসড়া এবং পাট আইন ২০১৫ এর খসড়াও নীতিগতভাবে অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূঁঞা এ কথা জানান।
সচিব জানান, মোবাইল কোর্ট আইনটি প্রণীত হয়েছিল ২০০৯ সালে। এর উদ্দেশ্য ছিল খাদ্যে ভেজালবিরোধী অভিযান, নকলমুক্ত পরীক্ষা, ইভটিজিং প্রতিরোধ, জনসাধারণের জানমালের নিরাপত্তা ও নির্বাচনকালীন শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখা ইত্যাদি। কিন্তু এসব ঘটনার বিচার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি দোষ স্বীকার না করলে শাস্তি দেয়া যেতো না। বর্তমান সংশোধিত আইনে দোষ স্বীকার না করলেও সাক্ষী ও পারিপার্শ্বিক ঘটনার ভিত্তিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দোষীদের সাজা দিতে পারবেন।
সচিব জানান, এই আইনের ফলে মোবাইল কোর্ট কার্যকরভাবে পরিচালনা সম্ভব হবে এবং জনগণ তার সুফল পাবে।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, নতুন সংশোধিত আইনে বিচার কার্য পরিচালনার জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া, বিচারে বিশেষজ্ঞ পরামর্শ নিতে পারবেন ম্যাজিস্ট্রেটরা।