ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:১৯ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

আসাদুজ্জামান খান কামাল
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ফাইল ফটো

দেশে আপরাধীই থাকবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল যে কোন অপরাধের বিরুদ্ধে বর্তমান সরকারের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করে বলেছেন, দেশে কোন আপরাধী থাকবে না।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার একটি অপরাধ মুক্ত সমাজ গঠনে এবং ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

মন্ত্রী আজ তার কার্যালয়ে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টাস এসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকার বাংলাদেশকে সকলের জন্য একটি নিরাপদ আবাসস্থল হিসেবে গড়ে তুলতে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করছে।

তিনি জঙ্গি জিয়া এবং তার সহযোগীদের সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ইতোমধ্যেই জঙ্গি জিয়ার চ্যানেল সনাক্ত করেছে, জিয়া যে কোন সময়ে আমাদের নেটওয়ার্কে চলে আসবে।

ক্র্যাব সভাপতি আবু সালেহ খান, সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার আলম, সহ-সভাপতি সাব্বির মাহমুদ, যুগ্ম-সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকু এবং অন্যান্য কর্মকর্তারা বৈঠকে যোগ দেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ ও গতিশীল নেতৃত্বে দেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকার দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবেলার পাশাপাশি দেশের উন্নয়নের জন্য একাধিক আর্ন্তজাতিক স্বীকৃতি লাভ করেছেন।

আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে আন্তর্জাতিক ফোরামের বিভিন্ন সম্মানজনক অ্যাওয়ার্ড ও পুরস্কার দেয়ার মধ্য দিয়ে প্রমানিত হয়েছে, আমাদের সরকার একটি সফল ও গণমুখী সরকার।

সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এমন একটি উচ্চতায় নিয়ে গেছেন, যার কারণে উন্নয়নের বিরুদ্ধে কেউ ষড়যন্ত্র করতে পারবে বলে আমি মনে করি না।

মন্ত্রী সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বর্তমান সরকার গৃহিত বিভিন্ন পদক্ষেপের উল্লেখ করে বলেন, সরকারের প্রথম এবং মুখ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করা।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের জন্য বাংলাদেশের ভূমি কেউ যাতে ব্যবহার করতে না পারে, এটি নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুত ভিশন নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনী ও গোয়েন্দা বাহিনীর সক্ষমতার উল্লেখ করে বলেন, সরকার নিরাপত্তা প্রশিক্ষণ গ্রহণের জন্য আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বিদেশে পাঠেয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা বিদেশী প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্ব দিচ্ছি। ফলে আমাদের আইন শৃ্খংলা রক্ষাকারি বাহিনী যে কোন অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি প্রতিরোধে ও নিয়ন্ত্রণে এবং সর্বশেষ যন্ত্রপাতি পরিচালনা করতে প্রশিক্ষণ নিতে পারে।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার দেশে এবং এ অঞ্চলে শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তিনি বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহযোগিতায় সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনার সরকার আর্থ-সামাজিক এবং মানবিক অগ্রগতির জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রশংসা অর্জন করেছে।