ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৪৫ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

দেশের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রভাসে কর্মরত অভিবাসীদের সততা ও নিষ্ঠার মাধ্যমে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল করার আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১ বিনির্মাণের মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করতে সক্ষম হবেন বলেও তিনি প্রত্যাশা করেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিন ‘আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০১৪’ উপলক্ষে দেয়া আজ এক বাণীতে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অভিবাসী ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানের সঙ্গে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন নিবিড়ভাবে সম্পর্কিত। অভিবাসী কর্মীদের কল্যাণ ও স্বার্থ সংরক্ষণ, তাদের অর্জিত বৈদেশিক মুদ্রার সর্বোত্তম ব্যবহার এবং তাদের পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ অভিবাসন ব্যবস্থাপনাকে স্বচ্ছ ও গতিশীল করতে গত ছয় বছরে তাঁর সরকার বিভিন্নমুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে।
তিনি বলেন, ‘আমরা ‘বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী কর্মী আইন-২০১৩’ এবং ‘জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন নীতি -২০১১’ প্রণয়ন করেছি। জিটুজি পদ্ধতিতে মালয়েশিয়াগামী কর্মীর অভিবাসন ব্যয় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর সামর্থ্যরে মধ্যে নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে। প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক হতে অভিবাসী কর্মীদের সহজ শর্তে জামানতবিহীন ঋণ প্রদান করা হচ্ছে। অভিবাসী কর্মীদের স্বার্থরক্ষা ও সেবা প্রদানের জন্য বিদেশস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম উইং-এ অধিক সংখ্যক জনবল পদায়ন করা হয়েছে। নতুন নতুন মিশন খোলা হচ্ছে। ১৫টি নতুন শ্রম উইং চালু করেছি।’
বিদেশে কর্মী প্রেরণের ক্ষেত্রে অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ডাটাবেজ প্রস্তুত করা হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিদেশগামী প্রত্যেক কর্মীকে ফিঙ্গারপ্রিন্টসহ বায়োমেট্রিক ডাটাসমৃদ্ধ ‘স্মার্টকার্ড’ প্রদান করা হয়েছে। প্রবাসী নারী কর্মীদের সুরক্ষা ও অধিকার নিশ্চিত হওয়ার ফলে নারী কর্মীদের বিদেশে যাওয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
“বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও ‘আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০১৪’ উদ্যাপন করা হচ্ছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বিদেশে কর্মরত কর্মীদের এবং দেশে অবস্থানরত তাদের পরিবারের কল্যাণ নিশ্চিত করার মধ্যেই এ দিবসের তাৎপর্য নিহিত। এ লক্ষ্য অর্জনে সরকারের পাশাপাশি তিনি সংশ্লিষ্ট সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।
প্রধানমন্ত্রী এ দিনে প্রবাসে কর্মরত সকল বাংলাদেশি অভিবাসী ভাইবোন ও তাদের পরিবারের সদস্যের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান এবং ‘আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস-২০১৪’-এর সার্বিক সাফল্য কামনা করেন ।