শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:২১ ঢাকা, রবিবার  ১৬ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

সরকার কোনো ধর্মীয় মূল্যবোধে নয় নাস্তিকতায় বিশ্বাস করে: মঈন খান

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন, সরকার কোনো ধর্মীয় মূল্যবোধে বিশ্বাস করে না। তারা নাস্তিকতায় বিশ্বাস করে। দেশে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা না থাকায় দুর্নীতি, অন্যায় অনাচার ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা এমন একটি দেশে বাস করছি যেখানে জনগণের প্রতিনিধিত্বমূলক কোনো সরকার নেই। গণতন্ত্র আজ মৃত। দেশের বর্তমান অবস্থায় সুস্থ রাজনীতি করা সম্ভব নয়। এ অবস্থা থেকে ১৬ কোটি মানুষকে মুক্তি দিতে হবে। এ দেশে এখন কেউ ভিন্ন মত পোষণ করতে পারে না। কেউ ভিন্নমত পোষণ করলে তার ওপর নেমে আসে খড়গ।

মঙ্গলবার রাজধানীর ইস্কাটন লেডিস ক্লাবে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব বলেন।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে সু্স্থ রাজনীতি করা সম্ভব নয় এমন মন্তব্য করে ড. আব্দুল মঈন খান বলেন, বিএনপি শান্তিপূর্ণ রাজনীতিতে বিশ্বাস করে। যে কারণে সরকারের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জবাব আমরা শান্তিপূর্ণভাবেই দিচ্ছি এবং দেব।

তিনি বলেন, সরকার কোনো ধর্মীয় মূল্যবোধে বিশ্বাস করে না। তারা নাস্তিকতায় বিশ্বাস করে। সরকার দলীয় লোকেরা বিভিন্ন জায়গায় মুসলিম ভাইদের ইফতারি কেড়ে নিচ্ছে।

তিনি বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে দেখেছি গণতন্ত্র হত্যা করে সেনাবাহিনী। কিন্তু আমাদের বাংলাদেশে গণতন্ত্র হত্যা করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। জিয়াউর রহমান সেই মৃত গণতন্ত্রকে পুনরুজ্জীবিত করেছে। জিয়াউর রহমানের নাম এদেশের প্রতিটি মানুষের হূদয়ে লেখা আছে। ইতিহাস বদলিয়ে তার নাম মুছে দেয়া যাবে না।

অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বর্তমানে দেশে এমনিতেই বাক স্বাধীনতা, মানবাধিকার ও গণতন্ত্র নেই। পবিত্র রমজান মাসে ইফতার মাহফিলও করতে বাধা দেয়া হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে ইফতার মাহফিলে হামলা করছে সরকারের লোকজন। ধর্মীয় কাজকর্মও বিঘি্নত হচ্ছে। অনেকেই বলছেন আমরা হতাশ হয়ে গেছি, ভয় পেয়েছি। কিন্তু আমরা হতাশ নই। বরং সরকার এবং হামলাকারীরাই হতাশ। তাদের অঙ্গভঙ্গিতেই হতাশার প্রমাণ স্পষ্ট হচ্ছে। তিনি বলেন, এমতাবস্থায় বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াই করতে হবে। মুক্তির সংগ্রামে অংশ নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে পেশাজীবীদের অগ্রণী ভুমিকা পালনের আহ্বান জানান তিনি।

ইফতার মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার। ইফতার মাহফিল পরিচালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও সংগঠনের ঢাকা বিভাগীয় মনিটর ড. আল মোজাদ্দেদী আলফেছানী। ইফতার মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এ এস এম আব্দুল হালিম, যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানাউল্লা মিয়া, সহদপ্তর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, মানিকগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খানম রিতা, টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম তোফা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যারয়ের সাবেক প্রো-ভিসি অধ্যাপক আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, প্রকৌশলী আ ন হ আখতার হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সদরুল আমিন, অধ্যাপক ড. আখতার হোসেন,পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপচার্য আব্দুল লতিফ মাসুম,ড. আব্দুর রশিদ, ড. খলিলুর রহমান, ড. তাজমেরী এস এ ইসলাম, ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, ড. জসীম উদ্দিন, ড. আমির হোসেন ভূইয়া, ড. মো. দেলোয়ার হোসেন, এএমএম ইকবাল হোসেন, অধ্যাপক শহিদুল হক, কৃষিবিদ আনোয়ারুন্নবী মজুমদার, ডা. শহিদুল আলম প্রমুখ।