ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৫১ ঢাকা, শুক্রবার  ১৭ই আগস্ট ২০১৮ ইং

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

দেশের উন্নয়নে কাজ করতে রাষ্ট্রপতির আহ্বান

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ দেশের উন্নয়নে সরকারের সঙ্গে কাজ করতে স্থানীয় পেশাজীবী ও সামাজিক সংগঠনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি আজ রাজধানীর মিরপুরে বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমিতির নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের অভিষেক অনুষ্ঠানে ভাষণদানকালে বলেন, ‘সরকারের একার পক্ষে সার্বিক উন্নয়ন নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। দেশের উন্নয়নে সরকারের সঙ্গে স্থানীয়, পেশাজীবী ও সামাজিক সংগঠনগুলোকে কাজ করতে হবে।

রাষ্ট্রপতি সমিতির ৭-তলাবিশিষ্ট বাণিজ্যিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তরও স্থাপন করেন।

আবদুল হামিদ বৃহত্তর ময়মনসিংহের লোকদের প্রতি বিশেষ করে শিল্পপতিদের প্রতি রাজনৈতিক মতভেদের ঊর্ধ্বে ওঠে এ অঞ্চরের উন্নয়নে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক আদর্শ ও মত ভিন্নতার কারণে আমরা বিভিন্ন দলীয় রাজনীতি করি কিন্তু বৃহত্তর ময়মনসিংহের উন্নয়নের জন্য আমাদের সকলকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।’

তিনি বলেন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বৃহত্তম ময়মনসিংহের বিরাট সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও স্থানীয়ভাবে উদ্যোগ গ্রহণের অভাবে সেই সম্ভাবনাগুলো কাজে লাগানো সম্ভব হয়নি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমি আশা করছি এই অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য ওই সব সম্ভাবনা কাজে লাগাতে বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমিতি একটা কার্যকর মঞ্চ হিসাবে কাজ করবে।

তিনি বলেন, ময়মনসিংহ বাংলাদেশের প্রাচীন মানব বসতির অন্যতম সমৃদ্ধ অঞ্চল। এই এলাকাটি চমৎকার সব নদী-হাওর-বাওর বেষ্টিত এবং এটি ছিল ব্রিটিশ শাসিত ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম জেলা। এছাড়া ভাষা, সংস্কৃতির ও জীবনযাত্রার ক্ষেত্রে এর রয়েছে একটা স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য।

আবদুল হামিদ বলেন, সরকার ইতোমধ্যে ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার কাজ শুরু করেছে। এর জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, ‘আমি আশা করছি ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার পর এ অঞ্চলের উন্নয়ন কার্যক্রম আরো জোরদার হবে। আর ময়মনসিংহ সমিতি জাতীয় উন্নয়নের পাশাপাশি এ অঞ্চলের উন্নয়নে সক্রিয় ভূমিকা পালন করবে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমিতির সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মোঃ আবুল কালাম আজাদ।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তৃতা করেন সমিতির মহাসচিব পুলিশ সুপার হারুন-অর-রশিদ এবং সমিতির সহ-সভাপতি ও আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের তদন্ত সংস্থার চিফ কো-অর্ডিনেটর আব্দুল হান্নান খান।