Press "Enter" to skip to content

‘দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায় বিএনপি-জামায়াত’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত ২০১৪ সালের মতো জ্বালাও পোড়াও করে দেশকে অস্থিতিশীল করার পায়তারা করছে।

আজ রোববার সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে বেগম আমিনা মনসুর টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউটের একাডেমিক ভবন ও ছাত্রাবাসের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, নির্বাচন বানচাল করার জন্য বর্ণচোরারা মাঠে নেমেছেন। চক্রান্ত শুরু করেছেন। কিন্তু এ দেশের শান্তিপ্রিয় মানুষ দেশের উন্নয়ন ধ্বংসকারী যে কোন অশুভ শক্তিকে ভোটের মাঠে প্রতিহত করবে।

ড. কামাল ও ব্যারিষ্টার মইনুলদেরকে এক এগারোর কুশীলব উল্লেখ করে তিনি বলেন, এরাই শেখ হাসিনা ও বেগম খালেদা জিয়ার নামে সে সময় মামলা করেছিলেন। সেই মামলায় বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া এখন জেলখানায় বন্দী। সময়ের পরিবর্তনে এক এগারোর সেই কুশীলবরা আবার মাঠে নেমেছেন, খালেদা জিয়ার পক্ষাবলম্বন করে আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, আওয়ামী লীগ নির্বাচন চায়, বাংলার জনগণও নির্বাচন চায়। দেশে কোন মার্শাল ল’ চাই না। আওয়ামী লীগ কোন নির্বাচনকে ভয় পায় না, শুধু ভয় পায় চক্রান্তকারী ও ষড়যন্ত্রকারীদের। তবে এদেশের জনগণ চক্রান্তকারীদের কালো হাত ভেঙ্গে দিবে।

স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আবু নুর মোঃ শামসুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সহধর্মিনী বেগম লায়লা আরজুমান্দ, পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আশরাফ আলী, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অবঃ) মঈন উদ্দিন, পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব খুরশীদ ইকবাল রিজভী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সরকারের বিভিন্নমুখী উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে একদিকে মহাকাশ ও সমুদ্রসীমা জয় করা হয়েছে। পদ্মা সেতুর মতো মেগা প্রকল্প নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণ করা হচ্ছে। অন্যদিকে তৃণমূলের মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের কাজ করা হচ্ছে।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এখন ঘরে বসে থাকার সময় নেই। উন্নয়ন এবং ভালবাসা দিয়ে জনগণের কাছে ভোট চাইতে হবে। রাস্তাঘাট, স্কুল কলেজ,মসজিদ মাদ্্রাসাসহ অবকাঠামোগত সকল উন্নয়ন জনগণের কাছে তুলে ধরতে হবে। ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। গ্রামে গ্রামে, বাড়ি বাড়ি গিয়ে নৌকা মার্কার ভোট চাইতে হবে।

Mission News Theme by Compete Themes.