Press "Enter" to skip to content

‘দুর্নীতি বাড়ছে, দুর্নীতিবাজদের ধরতে হবে’ -রাষ্ট্রপতি

অসাধু ও দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে চলমান অভিযানের প্রশংসা করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে আর একই সঙ্গে দুর্নীতিও বাড়ছে। কিন্তু আমাদের এটি বন্ধ করতে হবে, দুর্নীতিবাজদের ধরতে হবে।’

রাষ্ট্রপতি দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে আবারো হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, তাদের রাজনৈতিক পরিচয় যা-ই হোক, তারা পার পাবে না।

নিজ জেলা কিশোরগঞ্জে সপ্তাহব্যাপী সফরে থাকা রাষ্ট্রপতি আজ বিকেলে তাড়াইল মুক্তিযোদ্ধা ডিগ্রী কলেজে জনসভায় বক্তৃতা করছিলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘সরকার সমাজ থেকে দুর্নীতি নির্মূলের একটি ভালো উদ্যোগ নিয়েছে। আমি মনে করি এটি খুবই ভালো ও প্রশংসনীয় উদ্যোগ।’

দুর্নীতির বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার দৃঢ় অবস্থানের উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি হামিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর নিজের ঘর থেকেই সব ধরনের দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু এবং আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ বা অন্য কোনো রাজনৈতিক দলের নেতা কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি, দেশ থেকে দুর্নীতি দূর করা গেলে, বাংলাদেশ যে কোনো দেশের চেয়ে বেশি এগিয়ে যাবে।’ জনগণ অনেক আশা-আকাঙ্খা নিয়ে ভোট দিয়ে এমপি, উপজেলা ও ইউপি চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও জননেতাদের নির্বাচিত করেছেন উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি জনগণের এ সমর্থনের প্রতি সম্মান দেখাতে তাদের একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান।

তিনি রাজনীতিবিদদের পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘আপনার পদ বা অবস্থান যা-ই হোক, জনগণের সঙ্গে ভালো আচরণ করুণ। তাদের কথা শুনুন এবং সাধ্যমত তাদের সহায়তা করুন।’

রাষ্ট্রপতি জনসভায় উপস্থিত তরুণ প্রজন্ম বিশেষ করে ছাত্রদের বৈশ্বিক প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে মনোযোগ দিয়ে পড়ালেখা করার উপদেশ দেন।

দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমার রাজনীতির মূল লক্ষ্য ছিলো বৃহত্তর কিশোরগঞ্জ জেলা তথা গোটা দেশ ও জনগণের উন্নয়ন করা।’

তিনি সকলের প্রতি দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানান।

স্থানীয় এমপি মুজিবুল হক চুন্নুর সভাপতিত্বে জনসভায় স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সচিবগণ অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন। –বাসস 

শেয়ার অপশন: